১১:৫৭ পিএম, ২৩ জানুয়ারী ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৬ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

অনিয়ম-ই যেন নিয়মে পরিণত

১৩ জানুয়ারী ২০১৮, ০২:৩৯ পিএম | মুন্না


কে. এম. রিয়াজুল ইসলাম, বরগুনা প্রতিনিধি : বরগুনার আমতলী উপজেলার মহিষডাঙ্গা এলাকায় ৫-৭ বছর আগে স্থাপিত হয়েছে এমসিকে ব্রিক্স।  যেখানে নিয়ম বলতে কিছুই দেখা যায়নি। 

ড্রাম চিমনী ব্যবহার করে পুড়ছে কাঠ, নষ্ট করছে ফসলী জমি, ভাটার পাশে স্ব-মিল বসিয়ে উজার করছে বনভূমি।  কিন্তু বছরের পর বছর এভাবে অনিয়ম করে গেলেও বহাল তবিয়তে টিকে আছে এসব অবৈধ ইটভাটা।  ফাঁকি দিচ্ছে সরকারের কোটি কোটি টাকার রাজস্ব আয়। 

স্থানীয়দের অভিযোগ, প্রশাসন, পরিবেশ অধিদপ্তরসহ সকলকে ম্যানেজ করেই এ অবৈধ ভাটা চালানো হচ্ছে।  কোন না কোন কারনে সকলেই নিরাবতা পালন করছেন।  আর ভাটা মালিকরাও বুঝে গেছেন, বৈধ কাজের চেয়ে অবৈধ কাজে লাভ বেশী।  তাই কোন ধরনের নীতিমালা তোয়াক্কা না করেই চালিয়ে যাচ্ছেন এসব অবৈধ ভাটা। 

শুধূ এই একটি ভাটাই নয়, বরগুনা জেলার আমতলী, তালতলী, পাথরঘাটা, বামনা ও বেতাগী উপজেলার এভাবে প্রায় অর্ধশত ইটভাটা নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে, অনিয়মকে নিয়মে পরিণত করে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। 

যদিও এ বিষয়ে বরগুনা জেলা প্রশাসক মহোদয় জানিয়েছেন আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার।  তাই স্থানীয় ভুক্তভোগীরা সে অপেক্ষায়-ই আছে। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক স্থানীয় ভুক্তভোগীরা জানান প্রতি বছর দু’একটি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা হয় কিছু কিছু ভাটায়।  তবে তার পরেই আবার শুরু হয় অবৈধ ভাটার কার্যক্রম। 

আমরা চাই বরগুনা জেলা প্রশাসনের হস্তক্ষেপে এসব অবৈধ ভাটা স্থায়ীভাবে বন্ধ হবে।  তাহলেই মানুষ বিশ্বাস করবে টাকা থাকলেই অবৈধকে বৈধ করা যায় না। 

Abu-Dhabi


21-February

keya