১:৪৪ পিএম, ২২ জুন ২০১৮, শুক্রবার | | ৮ শাওয়াল ১৪৩৯

South Asian College

অ্যাপেই রেকর্ড থাকবে ক্রেতার চেহারা

১৭ নভেম্বর ২০১৭, ০৫:৫৫ এএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : উন্নত দেশগুলোর অনেক সুপারমার্কেটে গ্রাহকদের কেনাকাটার জন্য দোকানের কোনো কর্মীর দরকার হয় না।  গ্রাহক নিজেই তার প্রয়োজনীয় পণ্য কিনে যাওয়ার সময় স্বয়ংক্রিয় ব্যবস্থার কাউন্টারে অর্থ পরিশোধ করে চলে যেতে পারেন। 

এ ক্ষেত্রে অপ্রাপ্তবয়স্করা ঝুঁকিপূর্ণ পণ্য কিনে চলে যাওয়ার ঝুঁকি থাকে।  এবার হয়তো সেই ঝুঁকি অনকটাই দূর হতে চলছে। 

ব্রিটিশ স্ট্রার্টআপ ইয়োটি নতুন এক ফেসিয়াল রিকগনিশন অ্যাপ এনেছে।  ক্রেতাদের নিজে নিজে কেনাকাটার বিভিন্ন সেবা দেয়ার প্রযুক্তি নির্মাতা মার্কিন প্রতিষ্ঠান এনসিআরের সঙ্গে চুক্তির ফলশ্রুতিতে নতুন এই অ্যাপ বানিয়েছে ব্রিটিশ স্ট্রার্টআপটি।  এই অ্যাপটি যুক্তরাজ্যের দুটি সুপারমার্কেটে পরীক্ষামূলকভাবে চালানো হবে। 

এই অ্যাপ গ্রাহকদের বয়স যাচাই করতে পারবে।  যার ফলে অ্যালকোহল আর ছুরির মতো পণ্যগুলো অপ্রাপ্তবয়স্করা কিনতে গেলে স্বয়ংক্রিয় পদ্ধতিতে তাদের কেনাকাটা করতে দেয়া হবে না।  এ ক্ষেত্রে মানুষের হস্তক্ষেপ প্রয়োজন হবে।  গ্রাহকদের জন্য ছাড়া এই অ্যাপ পাসপোর্টের মতো কোনো একটি প্রাতিষ্ঠানিক দলিলের ছবি আর একটি সেলফি নিয়ে কাজ করবে। 

এ ক্ষেত্রে নেয়া ছবি সংকেতায়ন করা রাখা হবে আর এতে প্রতিষ্ঠানটির কোনো অ্যাকসেস নেই বলে জানিয়েছে ইয়োটি।  এক বিবৃতিতে ইয়োটির পক্ষ থেকে বলা হয়, যুক্তরাজ্যের দুটি সুপারমার্কেট ২০১৮ সাল থেকে এই আইডি ব্যবস্থা নিয়ে পরীক্ষা চালানোর অনুমোদন পেয়েছে। 

এই অ্যাপ ব্যবহারে আগ্রহীদের তাদের অ্যান্ড্রয়েড বা আইওএস স্মার্টফোন দিয়ে একটি সেলফি তুলতে হবে, তাদের ফোন নাম্বার যাচাই করিয়ে নিতে হবে আর তারা তাদের যে পরিচয় দিচ্ছেন সে পরিচয় যে তাদেরই তার প্রমাণ দিতে একটি পরীক্ষা দিতে হবে

এই সেলফিটি অ্যাপ আর ড্রাইভিং লাইসেন্স বা পাসপোর্টের মতো একটি ছবিযুক্ত পরিচয়দানকারী দলিলের সঙ্গে যুক্ত করা হবে।  ইয়োটির কর্মীরা ওই দলিল, সেলফি আর পাসপোর্ট বা লাইসেন্সের ছবি যাচাই করে নেবেন।  কেউ যখন অ্যাপটি ব্যবহার করতে আসবেন তখন ইয়োটির কাছে সংরক্ষিত তথ্য ও ব্যক্তির পরিচয়ই যাচাইয়ে ব্যবহৃত হবে। 

প্রতিষ্ঠানটির সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান রবিন টম্বস বলেন, পাব, নাইটক্লাব আর ডেটিং সাইটগুলোতেও পরিচয় নিশ্চিত করতে এই প্রযুক্তি ব্যবহার করা যেতে পারে।  সেই সঙ্গে পরিচয় নিয়ে জালিয়াতি বন্ধেও এটি ব্যবহার করা যেতে পারে বলে মত দেন তিনি। 

টম্বস বলেন, ‘নিজেকে অন্য কারও পরিচয় দিয়ে তুলে ধরা বা আমাদের সব ব্যক্তিগত তথ্য হাতিয়ে নেয়া মানুষের জন্য অনেক সহজ। ’