৭:৩৫ পিএম, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, সোমবার | | ১৩ মুহররম ১৪৪০


আগেও দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিল নেপালে বিধ্বস্ত উড়োজাহাজটি

১৩ মার্চ ২০১৮, ০৮:৩৭ এএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম : নেপালে ১২ মার্চ বিধ্বস্ত হওয়া ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের ড্যাশ-৮ কিউ-৪০০ উড়োজাহাজটি আগেও দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিল। 

২০১৫ সালের ৪ সেপ্টেম্বর সৈয়দপুর বিমানবন্দরে অবতরণের সময় দুর্ঘটনায় কবলে পড়ে উড়োজাহাজটি।  সে সময় বিভিন্ন সংবাদমাধ্যমে এ খবর ছবিসহ প্রকাশিত হয়। 

জানা গেছে, ২০১৫ সালের ৪ সেপ্টেম্বর ইউএস বাংলা এয়ারলাইন্সের এই উড়োজাহাজটি (রেজিস্ট্রেশন নম্বর S2-AGU) সৈয়দপুর বিমানবন্দরে অবতরণের সময় রানওয়ে থেকে ছিটকে পড়ে পাশের জমিতে চলে যায়।  তবে সে সময় যাত্রীরা কেউ হতাহত হননি।  এ কারণে বিমানবন্দর বন্ধ রাখতে হয় দীর্ঘ সময়।  সেদিন সকাল সাড়ে ৭টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।  সে সময় সিভিল এভিয়েশন অথরিটির জনসংযোগ কর্মকর্তা এ কে এম রেজাউল করিম জানিয়েছিলেন, বিমানটি সৈয়দপুর বিমানবন্দরে অবতরণের   পর টারমাকের দিকে যাওয়ার সময় এর পেছনের ডান পাশের চাকা স্থানচ্যুত হয়ে যায়।  পরে দ্রুত যাত্রীদের উদ্ধার করা হয়।  সেদিন উড়োজাহজটিতে ৭৪ জন যাত্রী ছিলেন। 

ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের একই উড়োজাহাজ সোমবার (১২ মার্চ) বাংলাদেশ সময় বেলা ২টা ২০ মিনিটে নেপালের ত্রিভুবন আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে দুর্ঘটনায় পতিত হয়।  ৭৮ জন ধারণে সক্ষম কানাডার তৈরি ড্যাশ-৮-কিউ৪০০ উড়োজাহাজটিতে চারজন ক্রু ও ৬৭ যাত্রী মিলে ৭১ আরোহী ছিলেন।  এরমধ্যে ৩৭ জন পুরুষ, ২৮ জন নারী ও দুই শিশু ছিল।  এই যাত্রীদের মধ্যে ৩২ জন বাংলাদেশি, ৩৩ জন নেপালি, একজন চীনা ও একজন মালদ্বীপের নাগরিক।  এছাড়া উড়োজাহাজটির চারজন ক্রু ছিলেন। 


keya