৩:০৭ পিএম, ১৮ জুন ২০১৯, মঙ্গলবার | | ১৪ শাওয়াল ১৪৪০




আজ থেকে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি শুরু

২২ মে ২০১৯, ১১:৫৬ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে আজ থেকে শুরু হয়েছে ট্রেনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি।  চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে বুধবার (২২ মে) সকাল ৯টা থেকে শুরু ১ম দিনের টিকেট বিক্রি, এ  কার্যক্রম চলবে বিকেল চারটা পর্যন্ত।  পাশাপাশি অ্যাপসের মাধ্যমেও টিকিট বিক্রি করা হচ্ছে।  

ঈদের টিকেট বিক্রি শুরুর প্রথম দিনে চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে  দেখা যায় যাত্রীদের ভিড়।  বিভিন্ন রুটের যাত্রীরা টিকিটের আশায় দীর্ঘক্ষণ ধরে লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন।  আজ প্রথম দিন  ৩১ মে’র টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে।  এছাড়াও ২৯ মে থেকে আবার বিক্রি করা হবে ফিরতি ট্রেনের টিকেট।  যা চলবে আগামী ২ জুন (রোববার) পর্যন্ত।   প্রতিদিন চট্টগ্রাম স্টেশন থেকে বিশেষ ব্যবস্থাপনায় সকাল ৯টা থেকে শুরু হবে ট্রেনের টিকেট বিক্রি।  

রেলওয়ে সূত্র জানায়, আগামী ৫ জুন ঈদের সম্ভাব্য দিন ধরে নিয়ে দশদিন আগে থেকে অগ্রিম টিকেট বিক্রির দিন ধার্য করা হয়েছে।  আর ঈদের পূর্বের পাঁচদিন আপ ঈদের পরবর্তী ছয়দিনকে ডাউন হিসেবে ঈদের টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে।  

আজ ২২ মে ৩১ মে’র টিকেট বিক্রি করা হচ্ছে।  আগামী ২৩ মে ১ জুনের টিকেট, ২৪ মে ২ জুনের টিকেট, ২৫ মে ৩ জুনের টিকেট, ২৬ মে ৪ জুনের অগ্রিম টিকেট বিক্রি করা হবে।  এছাড়া ঈদ শেষে ফিরতি যাত্রীদের জন্য ২৯ মে দেওয়া হবে ৭ জুনের টিকিট, একইভাবে ৩০ ও ৩১ মে এবং ১ ও ২ জুন দেওয়া হবে যথাক্রমে ৮, ৯, ১০ ও ১১ জুনের টিকিট।  

বুধবার সকালে সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চট্টগ্রাম রেল স্টেশনে টিকেট সংগ্রহের জন্য যাত্রীদের উপচেপড়া ভিড়।  টিকিটের প্রত্যাশায় বিভিন্ন রুটের যাত্রীরা লাইনে দাঁড়িয়ে আছেন।  সবাই আশায় আছেন নিজেদের প্রত্যাশিত টিকেটের জন্য।  পরিবার-পরিজনকে ঈদের আগেই গ্রামের বাড়িতে পাঠিয়ে দিতে চান আহসান হাবীব।  তাই তিনি সেহেরির পর থেকেই চট্টগ্রাম রেল স্টেশন থেকে টিকেট সংগ্রহ করার জন্য লাইনে দাঁড়িয়েছেন।  কথা হয় বেসরকারি সংস্থায় কর্মরত আহসান হাবীবের সাথে। 

তিনি বলেন, ঈদের আগেভাগে পরিবারের সবাইকে গ্রামে পাঠিয়ে দিতে পারলে একটু ভালো হয়।  কারণ ঈদের দু'এক দিন আগে যেতে একটু সমস্যায় পড়ে।  পরিবার-পরিজনদের জন্য কয়টি টিকেট কিনবেন  জানতে চাইলে তিনি বলেন, মা, বাবা, ছোট বোন এবং স্ত্রী তারা চারজনই আগেভাগে গ্রামে চলে যাবেন।  তাই আপাতত চার জনের জন্য চারটি টিকেটই ক্রয় করবো।  

রেলওয়ে পূর্বাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক সৈয়দ ফারুক আহমদ বলেন, রেলওয়ে পূর্বাঞ্চল থেকে প্রতিদিন ১২ হাজার টিকিট দেওয়া হবে।  তারমধ্যে চট্টগ্রাম-ঢাকাগামী টিকেট বিক্রি হবে ৭৪৪১ এবং বাকীগুলো বিভিন্ন রুটে।  তিনি বলেন, রেলওয়ের অ্যাপসে ৫০ শতাংশ অর্থাৎ ৬ হাজার টিকিট এবং বাকি ৬ হাজার টিকিট রেল স্টেশনে দেওয়া হবে।  টিকেট সংগ্রহ করার জন্য যাত্রীকে অবশ্যই জাতীয় পরিচয়পত্র আনতে হবে। 

ঈদ উপলক্ষে স্পেশাল কোনো ট্রেনের ব্যবস্থা করা হয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, নিয়মিত ট্রেনের পাশাপাশি ঈদুল ফিতর উপলক্ষে বাংলাদেশ রেলওয়ের শিডিউল অনুযায়ী ট্রেনের সাথে যুক্ত হবে এক জোড়া বিশেষ ট্রেন।  চাঁদপুর স্পেশাল-১ এবং চাঁদুপুর স্পেশাল-২ নামে ট্রেন দুটি ২ জুন থেকে চট্টগ্রাম থেকে চাঁদপুর এবং চাঁদপুর থেকে চট্টগ্রামের উদ্দেশে যাতায়াত করবে।