৫:২৭ পিএম, ১১ ডিসেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ২ রবিউস সানি ১৪৪০




আদাজলের একাদিক গুণ

০৬ নভেম্বর ২০১৭, ০২:০৩ এএম | সাদি


এসএনএন২৪.কমঃ আদাজল খেয়ে কাজে নেমে পড়ার পরামর্শ অনেক বার শুনেছেন নিশ্চয়ই।  কিন্তু কখনও ভেবে দেখেছেন এর প্রকৃত অর্থ? আদতে কী কী গুণ থাকে এই আদাজলে তা জেনে নেয়া যাক। 

হালকা শীতে ঠাণ্ডা লাগার প্রবণতা সব থেকে বেশি থাকে।  এমন সময় সর্দি-কাশি সারাতে আদাজলের বিকল্প নেই। 

শুধু সর্দি-কাশিই নয় আদাজল পেটের পক্ষেও ভীষণ উপকারী।  এর নিয়মিত সেবন গ্যাসের সমস্যা কমায়।  বমি কিংবা বমি বমি ভাব থেকে মুক্তি দেয়। 

ব্যস্ত জীবনে অনেকেই জল কম খান।  শরীরে জলের পরিমাণ কম থাকার ফলে নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।  আদাজল দেহে জলের সমতা বজায় রাখতে সাহায্য করে। 

এখনকার দিনে খাওয়া-দাওয়াও ঠিক সময় হয় না।  ফলে অনেকেই পেটের জ্বালার সমস্যায় ভোগেন।  এই রোগের অব্যর্থ দাওয়াই আদাজল।  খেলেই শান্তি। 

সম্প্রতি একটি গবেষণায় জানা গেছে, আদা রক্তে শর্করার পরিমাণ কমিয়ে দেয়।  যাদের ডায়াবেটিসের সমস্যা আছে তারা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে আনতে আদাজল খাওয়া শুরু করতেই পারেন। 

জানা গেছে, রান্না করার চেয়ে কাঁচা আদার পুষ্টিগুণ রয়েছে।  আদাজলের মাধ্যমে বহু রোগের জীবাণু ধ্বংস হয়।  ক্যানসারের মতো মারণ রোগ প্রতিরোধের ক্ষেত্রেও নাকি আদার জুড়ি মেলা ভার। 

যারা ওজন নিয়ে সচেতন তাদের জন্যও আদাজল উপকারী।  এর নিয়মিত সেবন অতিরিক্ত চর্বি কমাতে সাহায্য করে। 

শোনা গেছে, মাইগ্রেনের সমস্যায় যারা ভোগেন তারা প্রথম থেকেই আদা খাওয়া শুরু করলে উপকার পান।  আদা শরীরের ব্যথা-বেদনা কমাতেও সাহায্য করে। 

অস্ট্রেলিয়ার এক গবেষণায় দেখা গেছে, আদা শরীরের রক্তজমাট দূর করতে সাহায্য করে।  রক্তের জীবাণু দূর করতেও এর জুড়ি নেই।