১১:৩৮ এএম, ২৫ নভেম্বর ২০১৭, শনিবার | | ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

আবার ফিরে এলো ঈদ-উল-আযহা

২৬ আগস্ট ২০১৭, ০৭:২৮ পিএম | ফখরুল


আবছর উদ্দিন অলি: বছর ঘুরে আবার এল পবিত্র ঈদ-উল-আযহা।  সুখ, সৌহার্দ্য আর আনন্দের বার্তা নিয়ে আসে এ উৎসব।  আজ সব ভেদাভেদ ভুলে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে মিলিত হওয়ার দিন।  সবাইকে ঈদ মোবারক।  পবিত্র ঈদুল আযহার আনন্দ অমলিন হোক।  ধনী-দরিদ্র, আত্মীয়-স্বজন, পাড়া-প্রতিবেশী সব মুসলমান মিলেমিশে ঈদের আনন্দ সমভাগ করে নেন, পারস্পরিক হিংসা-বিদ্বেষ, অহংকার ভুলে খুশিমনে ভ্রাতৃত্বের বন্ধ সুদৃঢ় করেন।     ঈদ-মোবারক।  ঈদ-মোবারক। 

আগামী ২ সেপ্টেম্বর শনিবার ১০ জিলহজ্ব পবিত্র ঈদ-উল-আযহা।  ঈদ-উল-আযহা মূলত: ধর্মীয় উৎসব হলেও বাহ্যিক ও সামাজিক অনুষ্ঠানের দিক থেকে এটি প্রায় ঈদুল ফিতরের অনুরূপ।  ত্যাগের মহিমায় উজ্জ্বল এই দিনেও থাকে আনন্দ উৎসব।  ঈদ-উল-আযহা মানে শুধুমাত্র গরু-ছাগলের মাংস ভক্ষন নয়, ত্যাগের আদর্শে উজ্জীবিত হওয়ারও সময়।  তাই কোরবানীর মূল দর্শন থেকে সরে গিয়ে ঈদ-উল আযহাকে অর্থ ব্যয়ের প্রতিযোগিতায় না নেয়াই ভাল। 
    
ঈদ মানে খুশী।  এক অনাবিল আনন্দ বছরে অনন্ত: এই একটা দিন সবাই মিলে উপভোগ করে খাওয়া-দাওয়া এবং বেড়ানোর নির্মল আনন্দ।  এবারের ঈদ-উল-আযহাও চিরায়ত আনন্দ উৎসবের আমেজে থাকবে পরিপূর্ণ।  বছরের সর্ববৃহৎ ধর্মীয় উৎসব ঈদ-উল-আযহার দিনে সবচেয়ে বড় আনন্দ পরিবার-পরিজন, আত্মীয়-স্বজনের সাথে মিলিত হওয়া।  আর ঈদ মওসুমের বড় বিড়ম্বনা দূর-দূরান্ত থেকে বাড়ী ফেরা।  শিক্ষা কর্মসূত্র বা বিভিন্ন উপলক্ষে যারা চট্টগ্রামে অবস্থান করেন তারা সবাই ফিরবেন বাড়ীতে পিতা-মাতা, ছেলে-মেয়ে ও স্ত্রী পরিবার-পরিজনের সাথে ঈদের আনন্দ উপভোগের জন্য।  কিন্তু যাত্রাপথে হয়রানীর কি শেষ আছে? নানা ঝামেলা হয়রানিতেও আনন্দ প্রায় ম্লান হয়ে যায়।  রেলে, বাসে হয়রানী, দূর্ঘটনা আরো কত কি?

দেশের অন্যান্য স্থানের চেয়ে চট্টগ্রামে পবিত্র ঈদ-উল-আযহার উৎসব পালিত হয় একটু ভিন্নভাবে।  বিশেষ করে নগরীতে এবং বর্তমানে গ্রামেও কোরবানীর পশু কেনা নিয়ে একটা প্রতিযোগিতা পড়ে যায়।  পশুর সাইজ (আকার) নিয়েই মূলত: এই প্রতিযোগিতা অর্থাৎ বিত্তবানরা কে কত বড় পশু ক্রয় করলো, কে কত বেশী দাম দিয়ে ক্রয় করলো এসব নিয়ে নগরীর বিভিন্ন পাড়ায়-পাড়ায়ও চলে আলাপ।  এ ধরনের প্রতিযোগিতা অনাকাঙ্খিত এবং বাড়াবাড়ি।  এতে হয় কি কোরবানীর বড় বাজেটের জন্য অনেক বড় রকম দুর্নীতিও করেন।  দুর্নীতি করে কোরবানীর পশুর সাইজ বড় করার কি দরকার? বেশী করে মাংস খাওয়ার জন্য? যারা সারা জীবনই মাংস খাওয়া থেকে বঞ্চিত তাদের কথা ভুলে গেলে চলবে না। 
    
মুসলমানদের মহা উৎসবের এ দিন পালনের প্রস্তুতি চলছে বার আউলিয়ার পূণ্যভূমি চট্টগ্রামেও।  নগরীর ঘরে ঘরে এখন ঈদের আমেজ।  সাজ সাজ রব সর্বত্রই।  ঈদে নানা রকম খাওয়া-দাওয়া, বেড়ানোর আনন্দ অফুরান।  এ আনন্দের অংশীদার সকলেই।  আনন্দময় হোক আমাদের ঈদ উৎসব।  হিংসা, বিদ্বেষ, হানাহানি বিভেদ ভূলে আমরা সুন্দর মনে এক হয়ে মিলিত হই ঐক্যের বন্ধনে।  উপভোগ্য হয়ে উঠুক ঈদ আনন্দ। 

আপনার আশে-পাশের পরিবেশ আপনারই।  পরিবেশটা সুন্দর রাখতে আমরা একটু সিরিয়াস হলে হয়।  নগরীর সৌন্দর্য আপনার সৌন্দর্য আমার সৌন্দর্য।  আপনি আপনার আশে-পাশের পরিবেশ সুন্দর রাখতে সহায়তা করুন।  মুসলিম স¤প্রদায় তাদের অন্যতম প্রধান ধর্মীয় উৎসব ঈদুল আযহা উদযাপন করবে।  ঘরে ঘরে ত্যাগের আনন্দে মহিমান্বিত হবে মন।  মুসলমানদের মহা উৎসবের এ দিন পালনের প্রস্তুতি চলছে বার আউলিয়ার পূণ্যভূমি চট্টগ্রামেও। 


লেখক: সাংবাদিক ও গীতিকার




Abu-Dhabi


21-February

keya