৯:৫৭ পিএম, ২০ মার্চ ২০১৯, বুধবার | | ১৩ রজব ১৪৪০




আমিরের জন্য কেঁদেছিলেন দিব্যা, ভরসা হয়েছিলেন সালমান!

১৪ মার্চ ২০১৯, ০৯:৪০ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : বলি ইন্ডাস্ট্রিতে কান পাতলে শোনা যায় মিস্টার পারফেকশনিস্ট আমির খান নাকি বরাবরই নাক উঁচু।  তিনি নাকি অনেক সময়ই জুনিয়র অ্যাক্টরদের সঙ্গে ভাল ব্যবহার করেন না।  অন্তত একটা সময় প্রয়াত অভিনেত্রী দিব্যা ভারতী অভিযোগ করেছিলেন। 

সুন্দরী বলিউডি অভিনেত্রী দিব্যাকে নিশ্চয়ই মনে আছে ? খুব অল্প সময়ের মধ্যেই উনি জনপ্রিয়তার শিখরে ওঠেন।  কিন্তু মাত্র ১৯ বছর বয়েসে জানলার কার্নিস থেকে পড়ে মারা যান তিনি।  

মূল ঘটনায় ফেরা যাক, দিব্যা তখনও সেভাবে প্রতিষ্ঠিত হননি বলিউডে।   

সে সময়ই একবার লন্ডনে শো করার ডাক পান উনি।  এই শোতে উনি ছাড়াও বেশ কয়েকজন জনপ্রিয় অভিনেতা যেমন আমির খান এবং সালমান খান ছিলেন।  সেখানে আমির ও দিব্যার একসঙ্গে পারফর্ম করার কথা ছিল।  কিন্তু আমির রাগ করে শেষ অবধি কিন্তু দিব্যার সঙ্গে পারফর্ম করেননি। 

মার্চ ১৯৯২-এ স্টারডাস্ট পত্রিকায় প্রকাশিত দিব্যার সাক্ষাত্কার থেকে জানা যাচ্ছে আমির কীরকম ব্যবহার করে ছিলেন তার সঙ্গে।  তিনি সেখানে বলেছিলেন,‘‘আমিরের আমার ওপর রাগ করার কোনও অধিকার নেই।  উল্টে আমার ওর ওপর রাগ করা উচিত।  লাইভ শো করতে গেলে একটু-আধটু ভুল সবারই হয়।  আমারও হয়েছিল। 

কিন্তু আমি সঙ্গে সঙ্গে তা সংশোধন করে নিই।  কিন্তু আমির তা লক্ষ্য করে এবং উদ্যোক্ততাদের জানিয়ে দেয় তিনি।  এবং তিনি বলেন, কোরিওগ্রাফারের বোনের সঙ্গে রিহার্সাল করতে চান। ’’

কিন্তু আমার সব থেকে খারাপ লাগলো যখন দেখলাম আমির আমার সঙ্গে পারফর্ম না করে তা জুহি চাওলার সঙ্গে করছে।  আমার তিনটে গানের সঙ্গে পারফর্ম করার কথা ছিল।  কিন্তু জুহির অনেকগুলো ডান্স পারফর্ম করার কথা ছিল, তা সত্ত্বেও ও এটাতেও পারফর্ম করলেন।  আমিরের সঙ্গে আমার একটা মেডলে ছিল।  ও সেটাও করতে মানা করে দিলেন।  বলেন তিনি নাকি খুব ক্লান্ত।  

এর ফলে আমার কাছে মাত্র একটা গান রইল ‘সাত সমুন্দর’।  আমি কেঁদে ফেলেছিলাম।  তখন সালমান আমার পাশে এসে দাঁড়ায়।  ও এমনিতেই অনেকগুলো গানে পারফর্ম করছিল।  কিন্তু তাও আমার সঙ্গে মেডলে করতে রাজি হয়ে গেল।  সালমানের ব্যবহারে আমি মুগ্ধ।  আমি সিওর এতে আমির প্রচন্ড রেগে যায় সালমানের ওপর।   

আমিরের অ্যাটিটিউড দেখে খুব খারাপ লাগে।  সিনিয়ার অ্যাক্টর হয়ে ওর উচিত জুনিয়রদের ভুল ত্রুটি শুধরে দেওয়া।  ওর একজন সিনিয়ারের মতো ব্যবহার করা উচিত, একজন তারকার মতো নয়।  ’’

এখানেই শেষ নয়, শোনা যায় আমিরের হস্তক্ষেপেই নাকি ‘ডর’ ছবি থেকে দিব্যাকে বাদ দিয়ে দেন যশ চোপড়া।