৮:১০ পিএম, ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১, বৃহস্পতিবার | | ১৩ রজব ১৪৪২




কবিতা

আয়না

৩১ জানুয়ারী ২০২১, ১১:৩৬ এএম |


আয়না

মুহাইমিনু

_______________________________

আমি আয়না সবাই যা দেখতে পারে না
      আমি কিন্তুু তা ঠিক দেখতে পাই
       কি বিশ্বাস হচ্ছে না তোমাদের?
    মনে আছে ঐ তো সেদিনের কথা ,
সুন্দর নীল পান্জাবি পরে নিজেকে
   সাজিয়ে ছিলে?
সবাই তোমাকে তাদের crush বলেছিলো
      আমি ঠিক দেখতে পাচ্ছিলাম তোমার
সুন্দরের পিছনে ছিলো একটা নোংরা মুখ। 

মনে আছে সেদিন আমার সামনে দাড়িয়ে ,
তুমি তোমার হাতে মায়ের দেয়া ঘরি পরছিলে!

আর তোমার এই হাতে আমি দেখছিলাম,,
      তোমার হাত রাতের অন্ধকারে কতো
   নারীর বক্ষ ছুয়ে গেছে। 

   আমার কাছে কিছু লুকানো যায় না
আমি সব দেখতে পারি যা তোমরা দেখোনা। 
ঐতো সেদিনের কথা মনে আছে তোমার?
তোমার পারার একটা শিশু হারিয়ে গিয়েছিলো''
 তাকে খুজে না পেয়ে তোমার ক্লান্ত মুখটা
       আমার সামনে দাড়িয়ে দেখছিলে
আর আমি দেখছিলাম তোমার তৃপ্ত চোখের মাঝে
     শিশুর কষ্ট চিৎকার, আত্যনাত্ব,  হাহাকার। 

        হু সেদিনের কথা অনেক ক্ষন ধরে
আমার সামনে দাড়িয়ে নিজেকে তৈরি করছিলে আজ এক তরুনি তোমার ভালোবাসা জয় করবে
সাদা পান্জাবিতে তোমাকে দারুন লাগছিলো। 
আর আমি দেখছিলাম লালসার মহাভোজে
   যাওয়া এক  রাক্ষস কে। 

       যখন তুমি লাল পারের নীল শাড়ি পরে
কপালে লাল টিপ আর আলতা রাঙ্গানো পায়ে
       নূপুর পরে নিজেকে সাজিয়েছো এক
         অপস্বরির অপরুপ রুপে। 
আমি দেখেছিলাম তোমার পায়ের আলতার
সাথে মিশে আছে কত ছেলের হৃদয়ের রাঙ্গানো
       ভালোবাসার লাল রং যা তুমি মারিয়ে
            এসেছো তোমার দু পায়ে!!
     বিশ্বাস কে ঠকিয়েছো তুমি তোমার রুপে। 

     আচ্ছা তোমরা এমন কেন?
 জানো আমি তোমাদের আর দেখতে চাই না
           আমি যে ক্লান্ত হয়েগিয়েছি
          তোমাদের এই মুখ আর মুখোশ
              আমি আর দেখতে চাই না!!
     এসো না আর আমার সামনে তোমরা
   আমি ভেঙ্গে চুরমার হবো  আর দেখবো না
            তোমাদের মুখের মুখোশ কে
তোমরা বরং তোমাদের বিবেকের কাছেই
        নিজেদের দেখে নিয়ো। 
        আমায় মুক্তি দাও তোমরা। 


keya