১১:০৪ এএম, ২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার | | ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




ইবির নিয়োগ বাণিজ্যের ঘটনা তদন্তে কমিটি

০২ জুলাই ২০১৯, ১০:২৭ এএম | নকিব


মুনজুরুল ইসলাম নাহিদ, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি :ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যাংকিং বিভাগের নিয়োগ বোর্ডকে ঘিরে বাণিজ্যের অডিও ফাঁসের ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠন করেছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। 

সোমবার বেলা ৩টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস এম আব্দুল লতিফ স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানা যায়। 


কলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক ড. সরওয়ার মুর্শেদকে আহবায়ক করে ৩ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে।  কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন, ইনফরমেশন এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. তপন কুমার জোদ্দার এবং কম্পিউটার সায়েন্স এন্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. আহসান-উল-আম্বিয়া। 

কমিটির সদস্যদের ঘটনার সত্যতা যাচাই, দোষী ব্যক্তিদের চিহ্নিত করা এবং অপরাধের মাত্রা নির্ধারন করে যথাশীঘ্রই প্রতিবেদন জমা দিতে বলা হয়েছে। 

জানা যায়, গত শুক্রবার ফিন্যান্স অ্যান্ড ব্যংকিং বিভাগের শিক্ষক নিয়োগকে  কেন্দ্র করে কথোপকথনের কয়েকটি অডিও ফাঁস হয়।  ফাঁস হওয়া অডিওতে ওই বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. রুহুল আমিন ও ইলেক্ট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেক্ট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের সহকারী অধ্যাপক আব্দুর রহমের সাথে আরিফ নামে এক  প্রার্থীর সাথে ১৮ লাখ টাকার চুক্তি হয়।  এর মধ্যে নিয়োগ পাওয়ার আগে ১০ লাখ ও পরে আরও ৮ লাখ দিতে বলেও দেন দরবার হয়। 

এ ঘটনার সাথে ওই দুই শিক্ষকের সম্পৃক্ততার প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়ায় শনিবার (২৯ জুন) প্রশাসন তাদের সাময়িক বরখাস্ত করে এবং ওই বিভাগের শিক্ষক নিয়োগ নির্বাচনী বোর্ড (লিখিত ও মৌখিক পরীক্ষা) স্থগিত করেন। 

এর আগেও ২০১৭ সালের ২ এপ্রিল একই নিয়োগ বোর্ড নিয়ে বাণিজ্যের ছক কষে এই রুহুল আমীন।  তবে সেই যাত্রায় প্রশাসনের ছত্রছায়ায় লঘু দন্ডে রেহাই পান তিনি এমন অভিযোগ শিক্ষক সমিতির নেতাদের।  বাণিজ্যের অভিযোগে এই নিয়ে টানা তৃতীয়বারের মতো নিয়োগ বোর্ড স্থগিত হলো। 


keya