৭:৩১ পিএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | | ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




ইবি ছাত্রলীগ সভাপতি-সম্পাদকের বিরুদ্ধে দলীয় নেতার মামলা

০৩ নভেম্বর ২০১৯, ০৫:৫২ পিএম | নকিব


মুনজুরুল ইসলাম নাহিদ,ইবি প্রতিনিধি : ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) শাখা ছাত্রলীগের সাবেক ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান লালনের বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারকে হুমকি দেওয়ার ঘটনায় মামলা করা হয়েছে। 

বিশ^বিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের কর্মচারী ইলিয়াস জোয়ার্দার, শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিবউল ইসলাম পলাশ ও সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবসহ ৭ জনের বিরুদ্ধে লালনের ভগ্নিপতি শহিদুল ইসলাম বাদী এ মামলা দায়ের করেন। 

শনিবার রাতে মেহেরপুরের গাংনী থানায় এ মামলা বকরা হয়।  

মামলা সূত্রে জানা যায়, হুমকির ঘটনায় অভিযুক্ত কর্মচারী ইলিয়াস জোয়ার্দ্দারকে প্রধান আসামী করে দন্ডবিধি ১৪৩, ৪৪৮ এবং ৫০৬ ধারায় মামলা করা হয়েছে।  মামলায় বিশ^বিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ এবং সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিবকেও আসামী করা হয়েছে।  এছাড়াও মোট ৭ জনের নাম উল্লেখসহ আরোও অজ্ঞাতনামা ৩/৪ জনকে আসামী করা হয়েছে। 

মামলার এজহারে উল্লেখ করা হয়েছে, লালনের সাথে সাবেক প্রক্টর অধ্যাপক ড. মাহবুবর রহমানের দুর্নীতি বিরোধী আন্দোলন এবং প্রক্টর পরিবর্তন আন্দোলনের নেতৃত্ব দেওয়াসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক কারনে শক্রতা চলছে।  সেই শত্রæতার জের ধরে ড. মাহবুবর রহমান লালনকে হুমকি দেওয়াসহ তাঁর ক্ষতি সাধনে লিপ্ত।  তাই এজহারে উল্লেখিত আসামীগন গত শুক্রবার সন্ধ্যায় মেহেরপুর জেলার গাংনী থানাধীন মটমুরা বাজার সংলগ্ন এলাকায় লাললের বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের সদস্যদের সামনে তাকে হত্যার হুমকি দেয়।  

গাংনী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সাজেদুল ইসলাম মামলার বিষয়ে বলেন, ‘ইবি কর্মচারীসহ যে চারজনকে আটক করা হয়েছে তাদেরকে আদালতে পাঠানো হবে। ’

এজহারে অভিযুক্ত অধ্যাপক মাহবুবর রহমান বলেন, ‘এসব অবান্তর অভিযোগ।  আসামীর সাথে গত কয়েকদিন আমার কোন যোগাযোগই নেই।  আমাকে জড়িয়ে অন্য উদ্দেশ্য হাসিল করার চেষ্টা করছে একটি পক্ষ। ’ 

মামলার চার নং আসামী এবং ইবি শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম পলাশ বলেন,‘প্রায় একমাস ধরে আমি ঢাকায় আছি।  আমার বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ না থাকায় উদ্দেশ্য প্রণদিত ভাবে আসামী করা হয়েছে।  আমাকে রাজনৈতিক ভবে হেয় করতে মামলায় নাম দেয়া হয়েছে।