১২:৪৬ এএম, ২৭ নভেম্বর ২০২২, রোববার | | ৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪




উত্তাল চবি ক্যাম্পাস

২১ জুলাই ২০২২, ০৩:২৪ পিএম |


এসএনএন২৪.কমঃ  বিক্ষোভে উত্তাল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (চবি)।  ক্যাম্পাসে শিক্ষার্থীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতনে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচার দাবি জানান শিক্ষার্থীরা। 

পাশাপাশি সবার জন্য নিরাপদ ক্যাম্পাস গড়ে তোলা এবং সান্ধ্য আইন বাতিলের আহ্বান জানান তারা। 

বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) বেলা ১১টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের শতাধিক শিক্ষার্থী বিজ্ঞান অনুষদ প্রাঙ্গণ থেকে মিছিলটি শুরু করে প্রশাসনিক ভবনের সামনে এ কর্মসূচি পালন করেন। 

এদিকে ছাত্রী নির্যাতনে দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর। 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষার্থীকে যৌন হয়রানির ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে প্রতিবাদে ফেটে পড়েন সাধারণ শিক্ষার্থীরা।  শুধু সাধারণ শিক্ষার্থী নন, বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে প্রতিবাদে উত্তাল ছিল বিশ্ববিদ্যালয় চত্বর। 

এর আগে ক্যাম্পাসে নিরাপত্তা নিশ্চিতে চার দফা দাবিতে বুধবার (২০ জুলাই) রাত সাড়ে ৯টা থেকে সাড়ে ১২টা পর্যন্ত উপাচার্যের বাসভবনের সামনে বিক্ষোভ শুরু করেন ছাত্রীরা।  এ সময় চার দফা দাবি মেনে নেয়ার শর্তে আন্দোলন থেকে সরে আসেন ছাত্রীরা। 

গত রোববার (১৭ জুলাই) বিশ্ববিদ্যালয়ের বোটানিক্যাল গার্ডেন এলাকায় পাঁচ তরুণের হাতে এক শিক্ষার্থী যৌন নিপীড়নের শিকার হন।  এ সময় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীকে গাছের সঙ্গে বেঁধে বিবস্ত্র করে মুঠোফোনে ভিডিও ধারণেরও অভিযোগ পাওয়া যায়।  তার সঙ্গে থাকা এক বন্ধু প্রতিবাদ করলে তাকেও মারধর করা হয়।  শুধু তাই নয়, প্রক্টরের কার্যালয়ে মেয়েটি অভিযোগ জানাতে গেলে চবি ছাত্রলীগের সভাপতি রেজাউল হক রুবেল বাধা দেন বলে অভিযোগ ওঠে। 

এ ঘটনার পর দোষীদের গ্রেফতার না করে উল্টো ছাত্রীদের ১০টার মধ্যে হলে প্রবেশের বাধ্যবাধকতা দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।  এ ঘটনায় ফুঁসে ওঠে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।  এ ছাড়া সবার জন্য নিরাপদ ক্যাম্পাসেরও দাবি জানান তারা। 

এ ধরনের ঘটনা কোনোভাবেই কাম্য নয় বলে জানান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।  এদিকে ছাত্রীকে যৌন নিপীড়নের ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাই জড়িত বলে প্রাথমিকভাবে নিশ্চিত হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। 

এ ঘটনায় দোষীদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার আশ্বাস দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর রবিউল হোসেন ভূঁইয়া। 

এখন পর্যন্ত অজ্ঞাতনামা পাঁচজনকে আসামি করে মামলা করা হয়েছে। 


keya