৪:০১ পিএম, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১, রোববার | | ১৬ রজব ১৪৪২




উবারের চালকেরা কর্মী, স্বনির্ভর নন’

২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১০:২৬ এএম |


এসএনএন২৪.কমঃরাইড শেয়ারিং প্ল্যাটফর্ম উবারের চালকদের ‘কর্মী’ বা ‘শ্রমিক’ হিসেবে গণ্য করার রায় দিয়েছেন যুক্তরাজ্যের সর্বোচ্চ আদালত।  উবারের গাড়ি চালকদের কোনোভাবেই ‘স্বনির্ভর’ হিসেবে মনে করা হবে না বলেও ওই রায়ে বলা হয়। 

বেশ কয়েক বছর ধরেই যুক্তরাজ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে উবারচালকদের সঙ্গে আইনি লড়াই চালিয়ে যেতে হচ্ছে উবারকে।  তেমনই এক মামলায়, তিন দফা হারের পর যুক্তরাজ্যের সর্বোচ্চ আদালতে আপিল করে উবার।  সর্বশেষ সেই আপিলেও হার হয় যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক রাইড শেয়ারিং প্ল্যাটফর্মটির। 

দেশটির সর্বোচ্চ আদালতের ওই রায়ে বলা হয়েছে, উবারচালকেরা কোনোভাবেই স্বনির্ভর বা ফ্রিল্যান্সার নন।  বরং চালকেরা উবারের কর্মী। 

এ রায়কে ‘বড় ধরনের অর্জন’ বলে দাবি করছেন উবারচালকেরা।  কেননা এ রায়ের ফলে, চালকদের সর্বনিম্ন মজুরি ও বৈতনিক ছুটির মতো সুবিধা দিতে হতে পারে উবারকে।  

দেশটির অ্যাপ ড্রাইভার অ্যান্ড কুরিয়ার ইউনিয়নের সভাপতি ইয়াসিন আসলাম বিবিসিকে বলেন, এটা অনেক বড় ধরনের অর্জন এ অর্থে যে এর মধ্য দিয়ে আমরা বড় ধরনের গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে নিজেদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছি।  শারীরিক, মানসিক ও আর্থিক চাপের মধ্যে থেকেও আমরা এ লড়াই চালিয়ে গিয়েছি এবং কোনোভাবেই আমাদের দাবি ছাড়িনি। 

এর আগে ২০১৬ সালের অক্টোবরে ইয়াসিন আসলাম ও জেমস ফেরার উবারের বিরুদ্ধে প্রথম আইনি লড়াইয়ে জয় লাভ করেন।  শ্রম আদালতের ওই রায়ের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে শ্রম আপিল আদালতে আপিল করে উবার।  সেখানেও উবার চালকদের পক্ষে রায় গেলে কোর্ট অব আপিলে আরজি জানায় উবার।  ২০১৮ সালে আপিল কোর্টও উবারের বিরুদ্ধে রায় দেন। 

সর্বশেষ দেশটির সর্বোচ্চ আদালতে আপিল জানালে শুক্রবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) রায় ঘোষণার দিন ধার্য ছিল।  লর্ড লেগাটের আদালত সেখানেও উবারের বিরুদ্ধে রায় দেন।  রায়ে বলা হয়, চালকদের কর্মী হিসেবে গণ্য করতে হবে উবারকে।  আর সেটি শুধু যাত্রী পরিবহনের সময় নয় বরং যখনই একজন চালক উবারের অ্যাপে লগ-ইন করবেন, তখন থেকেই তাকে কর্মী হিসেবে গণ্য করতে হবে। 

এ রায়ের স্বপক্ষে আদালত বলেন, উবার যেহেতু ভাড়া নির্ধারণ করে দেয়, সেহেতু তারা এটাও নির্ধারণ করে দিচ্ছে যে একজন চালকের আয় কেমন হবে।  উবারচালকদের যে শর্ত দেয়, তাদের সেগুলোই বাধ্যতামূলকভাবে মানতে হয়।  একই সঙ্গে কোনো চালক যদি কোনো রাইড নিতে অস্বীকৃতি জানান, তাহলে চালককে আর্থিকভাবে জরিমানা করা হয়।  সবশেষে উবার একজন চালকের দক্ষতা পর্যবেক্ষণ করে যাত্রীদের দেওয়া ‘স্টার রেটিং’ এর মাধ্যমে।  এসব কারণে চালকদের কর্মী হিসেবেই গণ্য করতে হবে উবারকে।