২:৪১ পিএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার | | ২৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৮

South Asian College

একটি ভাঙ্গন: সীমান্ত রক্ষায় একমাত্র বাঁধা

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০:২৬ এএম | এন এ খোকন


মুফিজুর রহমান, নাইক্ষ্যংছড়ি (বান্দরবান) প্রতনিধি : বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ি উপজেলা সদরের সাথে মিয়ানমার সীমান্তবর্তী দোছড়ি ইউনিয়নটি গুরুত্বপূর্ণ একটি ইউনিয়ন।  রামুর কচ্ছপিয়া-দৌছড়ি সংযোগ সড়ক ওই ইউনিয়নের সাথে যোগাযোগের একমাত্র মাধ্যম।  কিন্তু গত কয়েকমাস পূর্বে নদীর পানির স্রোতে মূল সড়কটি ভেড়ে গ্রামের ভিতর চলে গেছে।  যার কারনে সীমান্তের কয়েকটি বিওপিতে বিজিবি সদস্যদের যাতায়ত সহ সাধারণ নাগরিক চলাচলে চরম ভোগান্তিতে রয়েছে। 

স্থানীয়দের মতে, প্রতিবেশী মায়ানমার রাষ্ট্রের আরাকান রাজ্যে বিরাজমান পরিস্থিতির কারনে সীমান্ত পাড়ি দিয়ে রোহিঙ্গারা প্রতিদিন দলে দলে ঢুকে পড়ছে বাংলাদেশে।  এছাড়াও প্রতিনিয়ম মিয়ানমার বাহিনীর সদস্যরা সীমান্তে মহড়া দিচ্ছে। 

এ পরিস্থিতিতে সীমান্ত পাহারায় নিয়োজিত বিজিবি জোয়ানদের যাতায়াতের একমাত্র সড়কের ভাঙ্গন প্রধান বাধা হয়ে দাড়িয়েছে।  যার কারনে বিজিবি সদস্যরা দ্রুত গতিতে নির্দিষ্ট স্থানে পৌছাতে সময় ক্ষেপন হয়। 

এদিকে সীমান্ত পরিস্থিতিকে গুরুত্ব দিয়ে সোমবার ভাঙ্গনস্থল পরির্দশন করেছেন বাংলাদেশ বর্ডার গার্ডের ৩১ বিজিবি অধিনায়ক লে.কর্ণের আনোয়ারুল আযীম। 

এসময় তিনি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে দ্রুত সড়ক নির্মাণের বিষয়ে কথা বলেন। 

দোছড়ি ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সদস্য সচিব মো: ইমরান ও রামুর সচেতন নাগরিক রেজাউল করিম টিপু জানান- সীমান্ত রক্ষা ঝুঁকিপূর্ণ ও ভাংগনের কবলে মানবতা আটকে গেছে।  দ্রুত সড়কটি নির্মাণ করা প্রয়োজন।  জোন কমান্ডারের তত্বাবধানে আপাতত যানবাহন চলাচলে জন্য ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।