৩:১৭ এএম, ২১ নভেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার | | ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

এমএনপি সেবা দেবে ইনফোজিলিয়ন

০৭ নভেম্বর ২০১৭, ০৮:১০ পিএম | সাদি


এসএনএন২৪.কম : মোবাইল ফোনের নম্বর অপরিবর্তিত রেখে অপারেটর বদল (এমএনপি) সেবার লাইসেন্স পেল বাংলাদেশ ও স্লোভেনিয়ার কনসোর্টিয়াম ইনফোজিলিয়ন বিডি-টেলিটেক। 

মঙ্গলবার রমনায় বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে আনুষ্ঠানিকভাবে এ ঘোষণা দেন সংস্থার চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ। 

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বর্তমানে বিশ্বের ৭২টি দেশে এমএনপি সেবা চালু আছে।  ২০১৩ সালের জুন মাসে এ প্রকল্প অনুমোদন পাওয়ার চার বছর পর তার বাস্তবায়ন হতে যাচ্ছে। 

তবে গ্রাহকরা কবে থেকে এই সেবা পাবেন, সে ব্যাপারে সংবাদ সম্মেলনে কিছুই জানানো হয়নি। 

সংবাদ সম্মেলনে ইনফোজিলিয়ন বিডি-টেলিটেকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাবরুর হোসেন উপস্থিত ছিলেন। 

বিটিআরসি কর্মকর্তারা জানান, এখন পর্যন্ত সিদ্ধান্ত অনুযায়ী একজন গ্রাহক ৩০ টাকা খরচ করে অপারেটর বদল করতে পারবেন।  এরপর আবারও আগের অপারেটরে ফিরতে হলে তাকে ৯০ দিন অপেক্ষা করতে হবে। 

এর আগে গত ৩১ অক্টোবর সন্ধ্যায় বিটিআরসি'র চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ সমকালকে ইনফোজিলিয়ন বিডি-টেলিটেক কনসোর্টিয়ামের নামে লাইসেন্স ইস্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেন।  একই দিন বিটিআরসি থেকে জারি করা চিঠিতে বলা হয়, আগামী এক মাসের মধ্যে ইনফোজিলিয়ন বিডি-টেলিটেক কনসোর্টিয়ামকে লাইসেন্স ফি বাবদ ভ্যাটসহ ১১ কোটি ৬০ লাখ টাকা পরিশোধ করতে হবে।  এ সময়ের মধ্যে তাদের পূর্ণাঙ্গ কনসোর্টিয়াম গঠন করে বিটিআরসিকে জানাতে হবে। 

গত বছর নিয়মতান্ত্রিক দরপত্র প্রক্রিয়ায় পাঁচটি কোম্পানির আবেদন পাওয়ার পর পুরো প্রক্রিয়া স্থগিত করেছিল বিটিআরসি।  পরে চলতি বছর সংক্ষিপ্ত দরপত্র প্রক্রিয়া বা 'বিউটি কনটেস্ট'র মাধ্যমে আবারও পাঁচটি কোম্পানির কাছ থেকে আবেদন গ্রহণ করে বিটিআরসি।  এ পাঁচটি কোম্পানির মধ্য থেকে ইনফোজিলিয়ন বিডি-টেলিটেক কনসোর্টিয়ামকে চূড়ান্ত হিসেবে মনোনীত করে বিটিআরসি'র মূল্যায়ন কমিটি।  এ কমিটির প্রধান ছিলেন বিটিআরসি'র কমিশনার (আইন) জহুরুল হক। 

এরপর সরকারের উচ্চপর্যায়ের অনুমোদন প্রক্রিয়া শেষে গত ৩১ অক্টোবর ইনফোজিলিয়ন বিডি-টেলিটেক কনসোর্টিয়ামকে এমএনপি সেবার লাইসেন্স দেওয়ার কথা জানিয়ে চূড়ান্ত চিঠি দেয় বিটিআরসি।