৪:২৫ পিএম, ১৮ জুলাই ২০১৮, বুধবার | | ৫ জ্বিলকদ ১৪৩৯


নীলফামারী-৪ আসনে

এ্যাড.আমিরুল ইসলামকে নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন চেয়ে এলাকাবাসীর মানবন্ধন

১১ জুলাই ২০১৮, ০৯:১১ এএম | জাহিদ


হামিদা আক্তার, নীলফামারী প্রতিনিধি : আগামী একাদ্বশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নীলফামারী-৪ (সৈয়দপুর-কিশোরগঞ্জ) আসনে গণমানুষের প্রাণপ্রিয় জননেতা এ্যাড.আমিরুল ইসলাম আমীরকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নৌকা প্রতীকে নির্বাচনী এলাকায় পাশে পেতেই স্থানীয় আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগ ও সেচ্ছাসেবকলীগের নেতাকর্মীবৃন্দসহ সর্বস্তরের সাধারণ মানুষ আসন্ন সংসদ নির্বাচনেই আওয়ামীলীগ মনোনিত প্রাথী হিসেবে পাশে পেতে চেয়ে এলাকাবাসী। 

১০ জুলাই’১৮ মঙ্গলবার বিকেলে সর্বস্তরের জনগণের আয়োজনে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়।  কিশোরগঞ্জ উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নে যুবলীগের আহবায়ক জগলুল হায়দার’র সভাপতিত্বে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন, র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

জানা যায়, বাংলাদেশ আওয়ামী কর আইনজীবিলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রকাশনা সম্পাদক, ট্যাক্স ল’ ইয়ারস্ এসোসিয়েশন কেন্দ্রী কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য, মুক্তিযোদ্ধা কল্যাণ ও পূর্নবাসন সোসাইটি, যুব কমান্ডের কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি, ঢাকা ট্যাকসেস বার এসোসিয়েশনের কার্যনির্বাহী সদস্য, বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ, নীলফামারী জেলা শাখার সহ-আইন বিষয়ক সম্পাদক, নর্থ বেঙ্গল ট্যাক্স ল’ ইয়ারস্ এসোসিয়েশনের সিনিয়র যুগ্ন সম্পাদক,

ছাত্র কল্যাণ পরিষদ কিশোরগঞ্জ উপজেলা শাখার সভাপতি ও বাংলাদেশ আওয়ামী সেচ্ছাসেবকলীগের কিশোরগঞ্জ উপজেলা শাখার সাবেক আহবায়ক এ্যাডভোকেট মোঃ আমিরুল ইসলাম আমীর, এলএলবি (অনার্স) এলএলএম (রা:বি) ভাইকে আসন্ন একাদ্বশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মনোনিত করতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আর্কষণে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয় বলে জানিয়েছেন কিশোরগঞ্জ সদর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের আইন বিষয়ক সম্পদক আব্দুল হামিদ। 

বড়ভিটা মেলাবর তিনমাথা মোড়ে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়। 

মানববন্ধনে দাঁড়িয়ে বক্তারা বক্তৃতায় বলেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়নে বাংলাদেশ এখন সমবৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে ক্রমাগত।  আসন্ন সংসদ নির্বাচনে এবারে কিশোরঞ্জবাসী আরাবও নৌকায় ভোট দিয়ে দেশ তথা এ জাতীকে এগিয়ে নিয়ে যেতে চায়।  কিন্তু এ জন্য নীলফামারী-৪ (কিশোরগঞ্জ-সৈয়দপুর) আসনে একজন যোগ্য তরুণ নেতৃত্বের প্রয়োজন।  এ কারণে আমরা সর্বস্তরের মানুষ আজ এক হয়ে একজন তরুণ ও যোগ্য নেতৃত্বের অগ্রপথিক এ্যাড.আমীর ভাইকে নৌকা প্রতীকে দেখতে চাই। 

মানববন্ধন শেষে একটি মৌন র‌্যালী বের করা হলে র‌্যালীটি বড়ভিটা শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে বড়ভিটা স্কুল এন্ড কলেজ মাঠে এসে শেষ হয়।  উক্ত মাঠে একটি সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।  সভায় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি মিলন মিয়ার সঞ্চালনায় বক্তৃতা করেন বড়ভিটা ইউনিয়নের যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আলম, যুবলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য সামছুল হক,বড়ভিটা ইউনিয়নের ৫নং ওর্য়াডের ছাত্রণীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন, ৮নং ওয়ার্ড সভাপতি ভূপতি কুমার রায়, ৭নং ওয়ার্ড সভাপতি নিরঞ্জন রায়, যুবলীগের কার্যনির্বাহী কমিটির উপদেষ্টা কামরুজ্জামান, সাংগঠনিক সম্পাদক তপন কমুার রায়, ২নং ওয়ার্ড সাধারণ সম্পাদক মামুনার রশিদ, ২নং ওর্য়াডের যুবলীগের সভাপতি মোরশেদ আলম প্রমূখ। 

সংক্ষিপ্ত বক্তৃতায় বক্তারা বলেন জননেত্রী শেখ হাসিনা তার যোগ্য নেতৃত্বে আমাদের এ দেশেকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করেছে।  তিনি তুরুন্যনির্ভর নেতৃত্বে বিশ্বাসী।  খন্ডিত কিশোরগঞ্জ উপজেলাটিকে এবারে তিনি অখন্ড কিশোরগঞ্জে রুপ দিয়েছেন এ জন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আমরা কতৃজ্ঞতা প্রকাশ করছি। 

কিশোরগঞ্জ উপজেলার মানুষ হয়েও আমরা বড়ভিটা, রণচন্ডি ও পুটিমারীবাসী সংযুক্ত ছিলাম জলঢাকা উপজেলার সাথে।  ফলে এ উপজেলার মানুষের কাছ থেকে আমরা বিছিন্ন হয়ে পরি আমাদের নিজস্ব উপজেলা থেকেই।  আমরা এ অঞ্চলের মানুষজন ছিটমহলবাসীর মতোই ছিলাম।  সকল উন্নয়ন থেকে আমরা পিছিয়ে পরেছি। 

বিশিষ্ট সমাজ সেবক মাজু ইসলাম বলেন, বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ছোয়া তেমনটা লাগেনি এ তিন ইউনিয়নে।  বর্তমান সাংসদ’র কোন সহযোগীতা আমরা পাইনি।  তাই আমরা এবারে কিশোরঞ্জের স্থায়ী বাসিন্দাকেই নৌকা প্রতীকে দেখতে চাই। 

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আর্কষণ করে বলতে চাই, আপনি তরুণ নেতা, দুখী মানুষের মুখে হাসি ফুটানোর নেতা, সৎ ও যোগ্য নেতা, বলিষ্ট কন্ঠসর নীলফামারী-৪ আসনের সর্বস্তরের মানুষের প্রাণপ্রিয় নেতা এ্যাড. আমির ভাইকে নৌকা প্রতীকে মনোনিত করে ভোট যুদ্ধে লড়াই করার সুযোগ দিন।  আমরা আপনাকে নৌকা প্রতীকের সাংসদ উপহার দিবো-ইনশাল্লাহ। 

ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম বলেন, এবারে আমরা আমাদের প্রিয় নেতা আমির ভাইকে নৌকা প্রতীকে দেখতে চাই কিশোরগঞ্জেবাসী।  আমির ভাইয়ের বলিষ্ট নেতৃত্বে আমরা কিশোরগঞ্জবাসী এখন এক কাতারে দাঁড়িয়ে জননেত্রী মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাতকে আরো শক্তিশালী করতে কাজ করে যাচিছ।  গ্রামগঞ্জের মানুষের কাছে উন্নয়নের বার্তা পৌছে দিচ্ছি আমীরভাইকে সাথে নিয়েই। 

ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের কার্যকরী সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা মমতাজুল হক কবি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা বির্নিমানে মাদার অফ হিউম্যানিটি দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নের মাধ্যমে সমৃদ্ধ সৈয়দপুর ও কিশোরগঞ্জ গড়তে আস্থা রাখুন আমীর ভাইয়ের উপর।  আমরা সকলে আছি জননেতা আমীর ভাইয়ের পাশে।  এ্যাড. আমীর ভাই নৌকা প্রতীকে নির্বাচনী মাঠে লড়াইয়ের সুযোগ পেলে নৌকার জয় সু-নিশ্চিত- ইনশাল্লাহ। 



keya