১:৩৯ পিএম, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮, বৃহস্পতিবার | | ৯ মুহররম ১৪৪০


ওরা ভয়ঙ্কর সাতজন

৩০ জুন ২০১৮, ০৪:৪৯ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : তারা যাত্রী হয়ে সংঘবদ্ধভাবে বাসে উঠে সুযোগ বুঝে নারী বা পুরুষ যাত্রীর কাছ থেকে কৌশলে ছিনতাই করে পালিয়ে যায় ।  যে সকল বাসে ভীড় বেশি থাকে সেই বাসই এই নারীদের বেশি পছন্দ। 

শুক্রবার নগরীর নিউ মার্কেট এলাকায় একটি বাসে এক মহিলার গলার চেইন ছিনতাই করতে গিয়ে ধরা পড়ে সাত নারী ছিনতাইকারী। 

গ্রেফতার হওয়া সাত নারী ছিনতাইকারী হলো, মোছা: রাহেলা(৪০), মোছা: আফিয়া বেগম (১৮), ফুলতার বেগম(২২), শাহার বানু (৫৫) ,সুলতানা বেগম(২৩),নাজমা বেগম(৩৫) ও মরিয়ম বেগম (২৫) । 

এ বিষয়ে কতোয়ালী থানার ওসি মোহাম্মদ মহসি বলেন, শুক্রবার একটি বাসে করে যাচ্ছিলেন রুমু নামের এক মেয়ে।  কিছুদুর যেতেই দেখেন পাঁচ ছয়জন মহিলা হুড়োহুড়ি করে বাসে উঠল।  এরপর বাস চলা শুরু করলেই রুমু এসব মহিলার অস্বাভাবিক আচরণ লক্ষ্য করেন।  পর্যআপ্ত জায়গা থাকা সত্ত্বেও গায়ে লেগে থাকা, ইচ্ছাকৃতভাবে ধাক্কা দেওয়া, কৃত্রিম ভিড় সৃষ্টি করা।  এর ফাঁকেই হঠাৎ তিনি তার ঘাড়ে একটা স্পর্শ অনুভব করেন।  হাত দেওয়ার সাথে সাথেই দেখেন তার গলায় থাকা স্বর্ণের চেইন উধাও।  সাথে সাথেই তিনি চিৎকার করে পাশে থাকা একজনকে ধরে ফেলেন। অন্য যাত্রীরা এসময় ছুটে এলে সুযোগ বুঝে কিছু মহিলা পালিয়ে যায়। 

ইতোমধ্যে রুমুর আটক করা মহিলা সবকিছু অস্বীকার শুরু করে।  এক পর্যায়ে সবাই মিলে সেখানকার টহল পুলিশের সহযোগিতা গ্রহণ করে।  টহল পুলিশ প্রথমেই আটককৃত মহিলার কাছ থেকে ছিনতাইয়ের কথার স্বীকারোক্তি গ্রহণ করে।  পরবর্তীতে তার দেওয়া তথ্য অনুযায়ী নগরী এবং সীতাকুন্ডের বিভিন্ন স্থান থেকে যাত্রা ভয়ঙ্কর করা ভয়ঙ্কর এই সাত ‘যাত্রী’ কে আটক করে।  এসময় উদ্ধার করা হয় সেই স্বর্ণের চেইনও।  পরে তাদের বিরূদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা করা হয়।