১:৫৮ পিএম, ২০ জানুয়ারী ২০২২, বৃহস্পতিবার | | ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩




কাজ না করেই লাখ টাকা আয়!

১২ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৪২ এএম |


এসএনএন২৪.কম: পৃথিবীতে বেঁচে থাকার জন্য অর্থ উপার্জনের প্রয়োজনীয়তা কতোটা তা সবাই জানেন।  তারপরেও জাপানের ৩৮ বছর বয়সী শোজি মরিমোতো বেকারত্ব দূর করতে যে পেশা বেছে নিয়েছেন, তা শুনলে চমকে ওঠে সবাই। 

কারণ শোজি কোনো কাজ না করেই তার পেশায় কয়েক লাখ টাকা উপার্জন করেছেন।  আর সেটা করেছেন নিজেকে ভাড়া দিয়ে। 

হ্যাঁ, শুনতে বা পড়তে অদ্ভুত লাগলেও এটা সত্যি যে শোজি নিজেই নিজেকে ভাড়া দেন।  কিন্তু নিজেকে ভাড়া দিয়ে কি করেন তিনি?

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম সিবিএস জানিয়েছে, শোজি জাপানের টোকিওর বাসিন্দা।  অচেনা মানুষেরা তাকে ভাড়া নিয়ে তার সঙ্গে সময় কাটান।  আর এজন্য শোজিকে কিছুই করতে হয় না।  তবুও গ্রাহকদের থেকে ১০ হাজার ইয়েন (প্রায় ৭৪৪৪ টাকা) করে নেন শোজি।  এছাড়াও যাতায়াত ও খাবার খরচ আলাদাভাবে নেওয়া হয়। 

এখন পর্যন্ত তিন হাজারের বেশি মানুষকে পরিষেবা দিয়েছেন শোজি।  প্রতিদিন দুই থেকে তিনজন ভাড়ায় নিয়ে যায় তাকে।  এভাবে তিনি আয় করেছেন কয়েক লাখ টাকা।  শোজি বলেন, একাকিত্বের শিকার ওসব গ্রাহকের সঙ্গে বসে কথা হয় তার।  তাদের সঙ্গে অংশ নেন লাঞ্চ বা ডিনারেও।  শোজির সঙ্গে তারাই দেখা করে, যাদের কথা শোনানোর জন্য কাউকে প্রয়োজন। 

তবে শোজি জানান, এক ব্যক্তি তাকে নিজের হাতে খুন করার কথা বলেছিল।  এছাড়াও কিছু লোক তাকে ঘর পরিষ্কার করতে, কাপড় ধুতে, নগ্ন হতে, বন্ধু হতে বলে।  তবে এ ধরনের কাজ একেবারেই করেন না তিনি।  পেশাদারদের মতোই মানুষের সঙ্গে শুধু কথা বলেন। 

২০১৮ সালে বেকারত্ব থেকে মুক্তি পেতে এই পেশা শুরু করেছিলেন শোজি।  ‘ডু নাথিং রেন্ট-এ-ম্যান’ নামে তার পরিষেবার বিজ্ঞাপন দিতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ট্যুইটারে অ্যাকাউন্ট খোলেন তিনি, যাতে এখন কয়েক লাখ ফলোয়ার আছে।  শোজি বলেন, ‘আমি মানুষের একাকিত্ব এবং তাদের অনুভূতি বুঝতে পারি।  তাই হয়তো তারা আমাকে ডাকে।  

জাপান সরকার জনগণের মধ্যে একাকিত্ব এবং সামাজিক বিচ্ছিন্নতার সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করছে।  ২০২০ সালে ক্রমবর্ধমান আত্মহত্যার হার নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে দেশটি।  এটি মোকাবিলায় একাকিত্ব মন্ত্রণালয়ও তৈরি করা হয়েছিল।