১:১৪ পিএম, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, মঙ্গলবার | | ৪ সফর ১৪৪২




কনর্সাট ফর বাংলাদশে

৩০ নভেম্বর -০০০১, ১২:০০ এএম | মোহাম্মদ হেলাল


// সন্তোষ চন্দ্র নাথ //

১৯৭১ সালের আগস্ট মাস।  পাকিস্তানের সেনাবাহিনী ও তাদের দোসর রাজাকার-আলবদর বাহিনী এ দেশের মুক্তিকামী মানুষের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে নির্বিচারে চালাচ্ছিল গণহত্যা।  কিন্তু পশ্চিমা দেশগুলো পাকবাহিনীর এই গণহত্যা এবং  ধ্বংসযজ্ঞের ব্যাপারে সচেতন ছিল না।  সেই সময় বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের সমর্থনে আমেরিকার নিউ ইয়র্কের ম্যাডিসন  স্কোয়ার গার্ডেনে আয়োজন করা হয়েছিল ‘দ্য কনসার্ট ফর বাংলাদেশ’-এর। 

ভারতীয় সেতারবাদক পণ্ডিত রবিশঙ্কর এবং সাবেক বিটল্স সংগীতদলের লিড গিটারবাদক জর্জ হ্যারিসন ১ আগস্ট  রবিবার ২টা ৩০ এবং ৮টায় প্রায় ৪০,০০০ দর্শকের উপস্থিতিতে এই কনসার্টে অংশ নেন।  পাকিস্তান সেনাবাহিনীর বর্বরোচিত গণহত্যা সম্পর্কে আন্তর্জাতিক মহলকে অবহিত করা, বাংলাদেশের  শরণার্থীদের জন্য আন্তর্জাতিক সচেতনতা এবং তাদের জন্য ত্রাণ তহবিল গড়তে মূলত এই কনসার্ট।  পণ্ডিত রবিশঙ্কর এবং জর্জ হ্যারিসন ছাড়াও এই কনসার্টে বিশ্ববিখ্যাত সংগীত-শিল্পীদের এক বিশাল দল অংশ নিয়েছিল।  সেখানে ছিলেন বব ডিলান, এরিক ক্ল্যাপটন, বিলি প্রিস্টন, লিয়ন রাসেল, ব্যাড ফিঙ্গার এবং রিঙ্গো রকস্টার।  এই কনসার্ট ও অন্যান্য অনুষঙ্গ থেকে প্রাপ্ত অর্থ সাহায্যের পরিমাণ ছিল  প্রায় ২,৪৩,৪১৮.৫১ মার্কিন ডলার, যা ইউনিসেফের মাধ্যমে শরণার্থীদের জন্য পাঠানো হয়েছিল। 

এই কনসার্টের আয়োজক পণ্ডিত রবিশঙ্কর, জর্জ হ্যারিসনসহ অন্যান্য  সংগীত-শিল্পী ছিলেন বাংলাদেশের দুঃসময়ের পরম বন্ধু।  তাঁদের মহতি অবদান বাংলাদেশের মানুষের হূদয়ে চির অম্লান।  কনসার্ট ফর বাংলাদেশের সংগীত-শিল্পীদের মধ্যে বব ডিলান এ বছর তাঁর গানে কাব্যময়তার জন্য সাহিত্যে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন।  এ বছরই লিওন রাসেল মৃত্যুবরণ করেছেন তাঁর মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাড়িতে—তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি। 

 

সম্পাদনায় : রফিকুল ইসলাম-২০, এসএনএন২৪.কম