১২:৫৭ পিএম, ১৫ আগস্ট ২০১৮, বুধবার | | ৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


কেপিএমে দুধর্ষ ৩ ডাকাত আটক

১৩ জুন ২০১৮, ০৪:৩৯ পিএম | সাদি


নজরুল ইসলাম লাভলু, কাপ্তাই প্রতিনিধি : কাপ্তাইয়ের চন্দ্রঘোনা কর্ণফুলী পেপার মিল (কেপিএম) থেকে দুধর্ষ ৩ ডাকাত আটক করেছে। 

বুধবার ভোরে মিলের নিরাপত্রা প্রহরী ও আনসার সদস্যরা।  এরা সংঘবদ্ধভবে ড্রেন দিয়ে মিলে ডাকাতির উদ্দেশ্যে প্রবেশ করেছিল।  এ ব্যাপারে কাপ্তাই থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।  আটকৃতদের থানায় সোর্পদ করেছে মিল কর্তৃপক্ষ।  মিলের নিরাপত্তা অফিস সূত্রে জানা গেছে, বুধবার দিবাগত রাত প্রায় ২ টার সময় মিলের ক্রেনজেটি এলাকা সংলগ্ন বড় ড্রেন দিয়ে ডাকাতির উদ্দেশ্য কয়েকজন  ডাকাত মিল অভ্যন্তরে ডুকে পরে। 

তাৎক্ষনিক বিষয়টি মিলের প্রধান নিরাপত্তা ফটকে খবর পৌছালে  নিরাপত্তা শিফট ইনচার্জ মোঃ রুস্তম আলী ঘটনাস্থলে ছুটে যায়।  সেখানে দায়িত্বরত নিরাপত্তা প্রহরী মোঃ রাসেল মিয়া, আনসার এপিসি হেলালুজ্জামান, আনসার সদস্য শাহাদাত হোসেন, ছোটন বড়–য়া, আবু তৈয়বসহ টহলরত পুলিশ ক্রেনজেটি এলাকা ঘিরে রাখে।  পরে অনেক খোঁজাখুঁজির পর ওই দিন ভোরে ৩ জন ডাকাতকে আটক করতে সক্ষম হয়। 

আটককৃতরা হল আবদুস সালাম, পিতাঃ মৃত আব্দুল হক, মো.রিয়াজ, পিতা মো.দুলাল, মো.ইমন, পিতা আব্দুল মান্নান।  এরা সবাই রাঙ্গুনীয়া উপজেলাধীন ফেরীঘাট এলাকার বাসিন্দা।   তাদের সাথে পালিয়ে যাওয়া অপর ডাকাতরা হলো মো.জাকির হোসেন, পিতাঃ অজ্ঞাত, মো.রুবেল, পিতা.আবদুল মাঝি।  এরা দীর্ঘদিন থেকে কেপিএম ও বন্ধ কেআরসিসহ আবাসিক এলাকায় চুরি ডাকাতি করে আসছিল বলে মিলের নিরাপত্তা কর্মকর্তা বাদশা আলম জানান। 

ইতিমধ্যে এ চক্রটি মিলের ওয়েল্ডিং সপ থেকে মূল্যবান তামার তার, ওয়েল্ডিং মেশিন, সহকারী প্রকৌশলী শিমুল পোদ্দার ও কেপিএম স্কুলের সহকারী শিক্ষক মোরসালিনের বাসা থেকে স্বর্ণালংকার সহ মূল্যবান জিনিসপত্র ডাকাতি করে নেয় বলেও তিনি জানান।  প্রসঙ্গত, ডাকাত আবদুস সালাম ও মোঃ রিয়াজ সম্প্রতি  কাপ্তাই উপজেলার সাবেক ইউএনও তারিকুল আলমের বাসায় ডাকাতির মামলার তালিকাভূক্ত আসামি।