৪:৩৬ পিএম, ১৩ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার | | ১৫ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




শেখ আফিল উদ্দিন এমপি

কমেছে দারিদ্যতার হার,বেড়েছে মানুষের জীবন-যাত্রার মান

০২ নভেম্বর ২০১৯, ০৩:৩১ পিএম | নকিব


মোঃ রাসেল ইসলাম,বেনাপোল (যশোর)প্রতিনিধিঃ অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ শ্লোগানে শার্শা উপজেলায় ৪৮তম জাতীয় সমবায় দিবস পালিত হয়েছে। 

প্রতি বছর নভেম্বর মাসের প্রথম শনিবার দিবসটি পালন করা হয়। 

দিবসটি উদযাপনে শার্শা উপজেলায় সরকারী-বেসরকারী সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। চলতি বছর দিবসটির মূল প্রতিপাদ্য- ‘বঙ্গবন্ধুর দর্শন, সমবায়ে উন্নয়ন। ’

জাতীয় পতাকা, সমবায় পতাকা উত্তোলন ও জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশনের মাধ্যমে ও পায়রা উড়িয়ে দিবসটির শুভ সূচনা করেন প্রধান অতিথী যশোর-১, শার্শা আসনের এমপি শেখ আফিল উদ্দিন।  

উদ্বোধন শেষে একটি র‌্যালি উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম হলরুমে এসে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। 

শার্শা উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে উপজেলা নিবার্হী অফিসার পূলক কুমার মন্ডলের সভাপতিত্বে সমবায় কার্যালয় ও সমবায়ীবৃন্দের আয়োজনে শার্শা অডিটোরিয়ামে শনিবার (২রা নম্ভেম্বর )সকাল ১১টার সময় আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। 

সমবায় দিবসে বিশেষ অতিথী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  উপজেলার চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব সিরাজুল হক মঞ্জু, ভাইস চেয়ারম্যান মেহেদি হাসান,মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আলেয়া ফেরদৌস,যশোর জেলা পরিষদের সদস্য অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল,শার্শা থানার অফিসার ইনচার্জ আতাউর রহমান, উপজেলা সমবায় সমিতির অফিসার এবিএস আক্কাস আলী। 

প্রধান অতিথী শেখ আফিল উদ্দিন এমপি বলেন,দেশে বর্তমানে ১ লাখ ৭৫ হাজার ৭৭০টি নিবন্ধিত সমবায় প্রতিষ্ঠানে প্রায় ১ কোটি ৬ লাখ ৯০ হাজার ৭২৮ জন সদস্য রয়েছে।  সমবায় সমিতি গুলোর কার্যকরী মূলধন প্রায় ১৪ হাজার ৫৪ কোটি টাকা এবং মোট সম্পদের পরিমাণ প্রায় ৭ হাজার ৩২ কোটি টাকা।  এসব সমবায়ের মাধ্যমে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে ৮ লাখ ২৬ হাজার ৭৩৮ জন লোকের কর্মসংস্থান হয়েছে। 

সমবায়ের মাধ্যমে বঙ্গবন্ধুর সোনার বংলা গড়ার স্বপ্ন বাস্তবায়ন করতে হবে।  হাজারো প্রতিকুলতার মধ্যেও জননেত্রী শেখ হাসনিার যোগ্য নেতৃত্বে দেশ আজ মধ্যমায়ের দেশে পরিণত হতে চলেছে।  কমেছে দারিদ্যতার হার, বেড়েছে মানুষের জীবন-যাত্রার মান।  মিয়ারমারের রোহিঙ্গা শরনার্থীদের আশ্রয় দিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনা বিশ্বব্যাপী সুমাম কুড়িয়েছেন। 

তিনি আরও বলেন ,সমবায় অধিদপ্তর জনগণের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন ও দারিদ্র্য হ্রাস করতে সরকারি উদ্যোগ বাস্তবায়নে অন্যতম প্রধান সংস্থা।  এ ছাড়া একটি জাতীয় প্রশিক্ষণ একাডেমি ও ১০টি আঞ্চলিক সমবায় প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট রয়েছে।  সমবায় সমিতির নিবন্ধন বিধিগত বিভিন্ন সেবা, আইনগত পরামর্শ এবং উন্নয়ন ও স¤প্রসারণমূলক কর্মকন্ডের মাধ্যমে সমবায় আন্দোলনকে সহায়তা করা ও জনগণের আর্থ-সামাজিক উন্নয়ন নিশ্চিত করা সমবায় অধিদপ্তরের মূল কার্যক্রম।  জাতীয় সমবায় দিবস বাংলাদেশ সরকার ঘোষিত একটি জাতীয় দিবস।  সমবায় সম্পর্কে জনগণকে সচেতন করা এবং সমবায় আন্দোলনে গতিশীলতা আনয়নের জন্য প্রতিবছর দিবসটি সারাদেশের ন্যায় শার্শা উপজেলায় উদযাপন করা হয়। 

দেশের উন্নয়নে সমবায় সমিতি অগ্রণি ভূমিকা রাখতে পারে।  সঞ্চয় করে একটি পরিবার স্বাবলম্বী হতে পারে।  বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশকে একটি মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত করার প্রচেষ্টায় কাজ করে চলেছেন।  আর এ মধ্যম আয়ের দেশ গড়তে হলে সমিতির প্রয়োজনিয়তা অপরিসীম।  অনুষ্ঠান শেষে শ্রেষ্ঠ সমবায় সমিতির মাঝে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করা হয়।