১২:৫৩ পিএম, ২৫ আগস্ট ২০১৯, রোববার | | ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




নিউজিল্যান্ডে দুটি মসজিদে হামলা, নিহত ২৭

১৫ মার্চ ২০১৯, ১১:০৩ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদসহ পৃথক এক স্থানে সন্ত্রাসী হামলায় কমপক্ষে ২৭ জন নিহত হয়েছেন। 

এতে সামান্যের জন্য বেঁচে গিয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা।  দলের খেলোয়াড়েরা হামলা হওয়া মসজিদ আল নুরের খুব কাছের এক মাঠেই অনুশীলন করছিলেন।  অনুশীলন শেষে তারা মসজিদটিতে জুমার নামাজ পড়তে গিয়েছিলেন। 

ক্রাইস্টচার্চে হ্যাগলি ওভাল মাঠের খুব কাছে অবস্থিত আল নুর মসজিদসহ লিনউড অ্যাভিনউয়ের একটি মসজিদে ও অন্য একটি স্থানে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। 

হামলা হওয়া দুই মসজিদের ম্যাপ শুক্রবার (১৫ মার্চ) স্থানীয় সময় বেলা ১টা ৩০ মিনিটে নামাজ শুরুর ঠিক ১০ মিনিট পর একজন বন্দুকধারী সেজদায় থাকা মুসল্লিদের ওপর গুলি চালান বলে প্রত্যক্ষদর্শীর বরাত দিয়ে নিউজিল্যান্ডের অনলাইন সংবাদমাধ্যম স্টাফ ডট কো জানিয়েছে।  এরপর জানালার কাচ ভেঙে হামলাকারী পালিয়ে যায়।  এ হামলায় বহু হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে। 

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, আল নূর মসজিদে হামলাকারী মিলিটারি পোশাক পরে মসজিদে প্রবেশ করেন।  স্বয়ংক্রিয় রাইফেল দিয়ে তিনি মসজিদে নামাজ পড়ার সময় মুসল্লিদের ওপর হামলা করেন।  এরপর তিনি পালিয়ে যান।  পুলিশ জানিয়েছে, হামলাকারী ২৮ বছর বয়সী ব্রেন্টন ট্যারেন্ট।  তিনি অস্ট্রেলিয়ান বংশোদ্ভূত। 

হামলার ঘটনায় এক নারীসহ চারজনকে আটক করেছে দেশটির পুলিশ।      

বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের খেলোয়াড়েরাও হ্যাগলি ওভাল মাঠে অনুশীলন শেষে আল নূর মসজিদে জুমার নামাজ পড়তে গিয়েছিলেন।  খেলোয়াড়রা সেখানে গিয়ে শুনতে পান মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে।  এরপর তারা দ্রুত ঘটনাস্থল ত্যাগ করে মাঠের দিকে চলে যান। 

হামলার পর টুইটার বার্তায় নিজেদের নিরাপদ থাকার ব্যাপারটি নিশ্চিত করেছেন বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের খেলোয়াড় তামিম ইকবাল ও মুশফিকুর রহিম। 

শুক্রবার জুমার নামাজের সময় আল নূর মসজিদ ও লিনউড অ্যাভিনিউয়ের একটি মসজিদের ভেতরে ঢুকে বন্দুরকধারী এলোপাতাড়ি গুলি চালায় বলে প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে নিউজিল্যান্ডের অনলাইন সংবাদমাধ্যম স্টাফ ডট কো জানিয়েছে। 

এক প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে জানান, গুলিতে বেশ কয়েকজন সঙ্গে সঙ্গে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। 

ক্রাইস্টচার্চের হ্যাগলি ওভাল মাঠে শনিবার বাংলাদেশ নিউজিল্যান্ডের তৃতীয় টেস্ট হওয়ার কথা রয়েছে।  তবে হামলার কারণে সে ম্যাচ বাতিল করা হয়েছে।