১১:৩৬ পিএম, ৮ আগস্ট ২০২০, শনিবার | | ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১




করোনা ভাইরাস: কোয়ারেন্টাইনে মেসি

১৫ মার্চ ২০২০, ১০:১৯ এএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম: ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর পর এবার নিজ বাড়িতে স্বেচ্ছায় কোয়ারেন্টাইনে থাকার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বার্সেলোনা অধিনায়ক লিওনেল মেসি।  শুধু মেসি একা নন, পুরো বার্সেলোনা স্কোয়াডই এখন কোয়ারেন্টাইনে আছে। 

ইউরোপ এখন বৈশ্বিক মহামারী করোনা ভাইরাসের প্রধান উপকেন্দ্র।  এই ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে এরইমধ্যে বন্ধ হয়ে গেছে ইউরোপের সব ক্রীড়া টুর্নামেন্ট।  এই তালিকায় আছে স্প্যানিশ লা লিগা ও দেশটির অন্যান্য ফুটবল আসরও।  শুধু তাই না, পুরো স্পেনেই এখন জরুরি অবস্থা চলছে। 

এদিকে লা লিগার পয়েন্ট টেবিলে রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে মাত্র ২ পয়েন্ট এগিয়ে আছে বার্সা।  এমতাবস্থায় কোয়ারেন্টাইনে থাকলেও ফের মৌসুম শুরু হওয়ার আগেই নিজেকে প্রস্তুত রাখতে চাইবেন তিনি।  সেক্ষেত্রে তার বার্সেলোনার বাড়িতেই আছে সব ব্যবস্থা। 

বার্সেলোনায় মেসির বিলাসবহুল বাড়িতে আউটডোর ফুটবল পিচ, সুইমিং পুল এবং ইনডোর জিম আছে।  অর্থাৎ আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় মেসির প্রস্তুতি নিতে কোনো অসুবিধা হবে না।  শুধু তাই না, তার বাড়ি যেখানে অবস্থিত সেই জায়গা 'নো ফ্লাই জোন'র অংশ।  তার মানে বেশ শান্তিতেই অনুশীলন সারতে পারবেন আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড। 

এর আগে করোনাভাইরাস আতঙ্কে পর্তুগালে অবস্থিত নিজ বাড়িতে স্বেচ্ছা কোয়ারেন্টাইনে থাকার সিদ্ধান্ত নেন রোনালদো।  পর্তুগালের মাদেইরায় আটলান্টিক মহাসাগরের পারে অবস্থিত তার বিলাসবহুল বাড়িতেও অনুশীলনের সব ব্যবস্থা আছে। 

এদিকে বার্সার মতো কোয়ারেন্টাইনে আছে রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড়রাও।  রিয়ালের বাস্কেটবল দলের এক খেলোয়াড়ের করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর প্রকাশ্যে আসার পর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।  তবে কোয়ারেন্টাইনে থাকা অবস্থায়ই রিয়ালের ফুটবলাররা অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন।  স্প্যানিশ ক্লাব আলাভেসের দুই কর্মকর্তার শরীরেও করোনা ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। 

সম্প্রতি জুভেন্টাসের ডিফেন্ডার দানিয়েল রুগানির কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন।  এর প্রভাবে জুভেন্টাস ও ইন্টার মিলানের (সর্বশেষ এই দলের বিপক্ষেই খেলেছেন রুগানি) সব খেলোয়াড়কে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে।  পরে করোনাভাইরাস পরীক্ষায় পজিটিভ হন আর্সেনাল কোচ মাইকেল আর্তেতা।  এর কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে করোনাভাইরাস পজিটিভ হন চেলসির ইংলিশ ফরোয়ার্ড কলাম হাডসন-ওডোই।