১১:১৫ পিএম, ১৮ নভেম্বর ২০১৮, রোববার | | ৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪০




১৩ মাসে কল ড্রপ ২২২ কোটিবার

কল ড্রপের শীর্ষে গ্রামীণফোন

২৪ অক্টোবর ২০১৮, ০৯:৫৪ এএম | মাসুম


এসএনএন২৪.কম : বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে, গত ১৩ মাসে মোবাইল ফোনের গ্রাহকেরা ২২২ কোটিবার, কথার মাঝে কল কেটে যাওয়া বা কল ড্রপের শিকার হয়েছেন। 

যদিও অপারেটরগুলো বলছে, এটি শুধু অপারেটরের ওপর নির্ভর করে না।  এ দেশে কল ড্রপ সীমার মধ্যেই রয়েছে। 

বিটিআরসি, মোবাইল কোম্পানিগুলোর কাছে কল ড্রপের পরিমাণ বেড়ে যাওয়ার কারণে গ্রাহক অসন্তুষ্টির কথা জানিয়ে ব্যাখ্যা চেয়েছে। 

বিটিআরসি'র ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড অপারেশনস, পরিচালক মো. গোলাম রাজ্জাক স্বাক্ষরিত ওই চিঠি মঙ্গলবার (২৩ অক্টোবর) মোবাইল কোম্পানিগুলোর কাছে পাঠানো হয়। 

বিটিআরসি'র চিঠিতে বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে কল ড্রপ-সংক্রান্ত অভিযোগ অব্যাহতভাবে বাড়ছে।  কল ড্রপের পরিমাণ বিটিআরসির নির্ধারিত সীমার (২ শতাংশ) মধ্যে থাকা আবশ্যক।  অপারেটরদের জমা দেওয়া প্রতিবেদনে কল ড্রপ নির্ধারিত সীমার মধ্যে রয়েছে দাবি করলেও গ্রাহক পর্যায়ে অনেক অভিযোগ আছে।  এ ছাড়া কোনো কোনো অপারেটরের নেটওয়ার্কে একটি কলে চার থেকে পাঁচবার কল ড্রপ হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। 

রোববার (২২ অক্টোবর) জাতীয় সংসদের অধিবেশনে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ কল ড্রপ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন। 

প্রতিবেদনের তথ্য অনুসারে, কল ড্রপে শীর্ষ অবস্থানে রয়েছে গ্রামীণফোন।  গ্রামীণফোনের এক বছরে কল ড্রপ হয়েছে ১০৩ কোটি ৪৩ লাখ বার।  দ্বিতীয় অবস্থানে থাকা রবির কল ড্রপ হয়েছে ৭৬ কোটি ১৮ লাখ বার।  বাংলালিংকের কল ড্রপ হয়েছে ৩৬ কোটি ৫৪ লাখ আর টেলিটকের প্রায় ৬ কোটি। 



keya