৭:২৮ এএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৭, বৃহস্পতিবার | | ২৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৮

South Asian College

কুড়িগ্রামে মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইনে ডায়রিয়া রোগীর চিকিৎসা

০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১০:০১ এএম | রাহুল


এসএনএন২৪.কম : কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ডায়রিয়ায় আক্রান্ত এক রোগীকে মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইন দেওয়া হয়েছে।  হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক রোগীকে ওই স্যালাইন দেওয়া হয় বলে অভিযোগ করেন রোগীর স্বজনরা।  উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা এ অভিযোগ স্বীকার করে বলেছেন, ভুলে স্যালাইনটি পুশ করা হয়েছিল রোগীর শরীরে।  তবে দ্রুত ভুলটি ধরা পড়ায় তা খুলে ফেলা হয় এবং এতে রোগীর কোনও ক্ষতি হয়নি। 

জানা গেছে, উপজেলার শিমুলবাড়ি ইউনিয়নের ভূড়িয়ারকুটি গ্রামর জকিরণ বেগম (৬০) ডায়রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে বুধবার সকালে ফুলবাড়ী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি হন।  এসময় তাকে একটি কলেরা স্যালাইন পুশ করা হয়।  ওই স্যালাইন শেষ হওয়ার পর বিকাল ৫টার দিকে তাকে আরেকটি স্যালাইন দেওয়া হয়।  আধা ঘণ্টা পর রোগীর ভাই এসে লক্ষ করেন যে স্যালাইনটির মেয়াদ শেষ হয়ে গেছে।  বিষয়টি তিনি নার্সদের অবহিত করলে দায়িত্বরত নার্স আশরাফিয়া জাহান দ্রুত স্যালাইনটি খুলে ফেলেন। 

রোগীর ভাই স্বপন মিয়া বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘বিকালে নতুন স্যালাইন পুশ করার পর হঠাৎ খেয়াল করি যে এর মেয়াদ নেই।  আমি না দেখলে হয়তো আমার বোনকে মারা যেতে হতো। ’

মেয়াদোত্তীর্ণ স্যালাইন রোগীর শরীরে পুশ করার অভিযোগ স্বীকার করে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. কে এম এ শাকির আহমেদ বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ভুলে স্যালাইনটি রোগীর শরীরে পুশ করা হয়েছিল।  জানামাত্র সেটি খুলে ফেলা হয়েছে। ’ খুব বেশিক্ষণ স্যালাইনটি রোগীর শরীরে ছিল না বলে এর ফলে রোগীর কোনও ক্ষতি হয়নি বলে জানান তিনি। 

কিভাবে এ ঘটনা ঘটেছে প্রশ্ন করলে ডা. শাকির আহমেদ বলেন, ‘কলেরা স্যালাইনটি আইসিডিডিআরবির তৈরি।  অনেকগুলো স্যালাইনের সঙ্গে হয়তো মেয়াদোত্তীর্ণ ওই স্যালাইনটিও এসে থাকতে পারে। ’ রোগীর দেখভাল করা হচ্ছে এবং এ ঘটনায় কোনও সমস্যা হয়নি বলে দাবি করেন তিনি।