১১:২০ পিএম, ১৫ অক্টোবর ২০১৮, সোমবার | | ৪ সফর ১৪৪০


কুয়েত দূতাবাসে স্বাধীনতা দিবস উদযাপন

২৬ মার্চ ২০১৮, ০৮:৫৮ পিএম | নকিব


সাদেক রিপন, কুয়েত প্রতিনিধি : যথাযোগ্য মর্যাদায় কুয়েতে বাংলাদেশ দূতাবাসে উদযাপিত হয়েছে মহান স্বাধীনতা দিবস ও জাতীয় দিবস।  স্থানীয় সময় ভোর ৫টার দিকে বাংলাদেশের সঙ্গে মিল রেখে জাতীয় সংগীত গেয়ে দিবসের কার্যক্রম শুরু হয়। 

প্রবাস জীবনের নানা ব্যস্ততার পরও স্থানীয় অভিবাসী বাংলাদেশিরা অনুষ্ঠানে যোগ দেন।  এরপর ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী সকাল ৯ টায় রাষ্ট্রদূত এস এম আবুল কালামের সভাপতিত্বে ও কাউন্সিলর দূতালয় প্রধান আনিসুজ্জানের সঞ্চালনায় দূতাবাস প্রাঙ্গণে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করেন । 

অনুষ্ঠানে শুরুতে পবিত্র কোনআন তেলাওয়াতের পর দিবস উপলক্ষে রাষ্ট্রপতি বাণী বিগ্রেডিয়ার শাহ সগিরুল ইসলাম,  প্রধানমন্ত্রী বাণী শ্রম কাউন্সিলর আব্দুল লতিফ খাঁন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাণী ভিসা ও প্রথম সচিব জহিরুল ইসলাম খাঁন, ও পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রীর বাণী সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা সাফায়েত হোসেন পাটোয়ারী বাণী সমূহ পাঠ করে শোনান।  সৌদি আরবে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ।  দূতাবাসের সব কর্মকর্তা, কর্মচারীরা ও বাংলাদেশি কমিউনিটির বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন। 

রাষ্ট্রদূত গোলাম মসীহ শুরুতে গভীর শ্রদ্ধা ও ভালোবাসায় স্মরণ করেন মহান মুক্তিযুদ্ধে নিহত সকল বীর শহীদদের।  তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আহব্বানে সেদিন সারা দেশের মানুষ মুক্তিযুদ্ধে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল।  জাতির পিতার নেতৃত্বে ৩০ লাখ শহীদের আত্মত্যাগ ও ২ লাখ মা-বোনের সম্ভ্রবহানির বিনিময়ে সশস্ত্র সংগ্রামের মাধ্যমে অর্জিত হয়েছিল আমাদের মহান স্বাধীনতা। 

গোলাম মসীহ বলেন, স্বাধীন বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা গড়ার অঙ্গীকার নিয়ে কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।  প্রধানমন্ত্রীর গতিশীল নেতৃত্বে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের প্রথম ধাপ অতিক্রম করেছে এবং উন্নয়নশীল দেশের যোগ্যতা অর্জনের স্বীকৃতি লাভ করেছে। 

আলোচনা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশি কমিউনিটির নেতারা অংশগ্রহণ করেন এবং মহান মুক্তিযুদ্ধে নিহত সকল বীর শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে বাংলাদেশ স্বল্পোন্নত দেশের তালিকা থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের প্রথম ধাপ অতিক্রম করায় উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন। 


keya