৬:০৮ এএম, ২৫ জুন ২০১৮, সোমবার | | ১১ শাওয়াল ১৪৩৯

South Asian College

পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে

কুয়েতে ফের এক সংবাদকর্মী নির্যাতনের শিকার

০৪ মার্চ ২০১৮, ১০:৪৭ পিএম | সাদি


সাদেক রিপন, কুয়েত প্রতিনিধি : কুয়েতে ফের এক সংবাদকর্মী পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে চরম নির্যাতনের শিকার, সহকর্মীরা কথিত নির্যাতকদের উপর্যপুরি হামলা থেকে রক্ষা করতে গেলে, অন্যান্য সংবাদকর্মীরাও হয়েছেন অপদস্থ এবং লাঞ্ছিত। 
ন্যক্কারজনক এ সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছে রফিকুল ইসলাম ভুলু নামে একজন প্রবাসী বাংলাদেশী, তার ভিনদেশী স্ত্রী, ছেলে সহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজন। 

২মার্চ ২০১৮ইং রাত সাড়ে ৮টায় বাংলাদেশ টিভি জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন কুয়েতের সহ-সভাপতি সাংবাদিক শেখ এহসানুল হক খোকন সহ অন্য সাংবাদিকরা প্রবাসী সাহিত্য পরিষদ কুয়েতের সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠান কভারেজ এর জন্য কুয়েত সিটিস্থ গুলশান হোটেলে গেলে আকস্মিক প্রথমে ভুলুর ভিনদেশী ফিলিপিনো স্ত্রী পরে ভুলু ও তার ছেলে সহ অজ্ঞাত আরো কয়েকজন গুলশান হোটেলে প্রবেশ করে এবং কোনো কিছু বুঝে উঠার আগেই সাংবাদিক এহসানুল হক খোকনের উপর অতর্কিতভাবে হামলা চালানো হয়। 

ঘটনার বিবরণ দিয়ে জানান,  রফিকুল ইসলাম ভুলু নামে ঐ প্রবাসী বাংলাদেশী দীর্ঘদিন ধরে ভিসা দালাল ও নানা অপকর্মের সাথে লিপ্ত কতিপয় প্রবাসীদের কাছ থেকে চাঁদা তুলে বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন করে আসছিলেন, আর এসব ঘটনা নিয়ে সাংবাদিক শেখ এহসানুল হক খোকন যখন পত্রিকায় লেখালেখি সহ প্রতিবাদ করে আসছিলেন। 

ফলে রফিকুল ইসলাম ভুলু দীর্ঘদিন ধরে শেখ এহসানুল হক খোকনের উপর ক্ষিপ্ত ছিলেন ।  আর এই শত্রুতার রেশ মেটাতেই সেদিন ভুলু একটি ন্যক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছিলেন। 

রফিকুল ইসলাম ভুলু স্থানীয় আইনে প্রতারক ও জালিয়াতি মামলার আসামী হিসেবে ভ্রমণে নিষেধাজ্ঞা আছে বলে জানা গেছে।  তার বিদেশী স্ত্রী কে দিয়ে এমন অপকর্মে আরো অনেকের উপর হামলা করিয়ে পরে স্থানীয় প্রশাসনের নিকট মিথ্যা মামলা দায়ের করে হয়রানি ও ভয়ভীতি দেখিয়ে আসছিলেন। 

ইতিপূর্বে, ঘটনার রাতেই বাংলাদেশ দূতাবাস কুয়েতের শ্রম কাউন্সিলর আব্দলু লতিফ খাঁনকে বিষয়টি মৌখিকভাবে জানানো হয়েছিল।  এছাড়া আজ স্থানীয় সময় বিকেল ২টায় কুয়েত প্রবাসী সংবাদকর্মীরা লিখিতভাবে একটি অভিযোগ পত্র কুয়েতস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত এস,এম,আবুল কালামক দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন। 

কুয়েতে কতিপয় প্রবাসী বাংলাদেশী অসাধু ভিসা দালালদের বিপক্ষে যখনই কোনো সংবাদকর্মী নিউজ করেন; তখনই ভিসা দালালদের কাছ থেকে আর্থিক সুবিধা ভোগকারীরা সংবাদকর্মীদের উপর নির্যাতন চালান।  আর তেমনই একটি ঘটনা গত ২মার্চ ২০১৮ইং রোজ শুক্রবার কুয়েত সিটির গুলশান হোটেলে ঘটেছে।