৯:৪২ এএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, রোববার | | ৭ রবিউস সানি ১৪৪০




রাবার বুলেট ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ

খাগড়াছড়িতে ইউপিডিএফ গ্রুপের কর্মী ও পুলিশের সংঘর্ষ আহত ১৫

০৭ মার্চ ২০১৮, ১১:৩১ পিএম | সাদি


খাগড়াছড়ি প্রতিনিধি : খাগড়াছড়িতে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট (ইউপিডিএফ)’র প্রসিত গ্রুপের কর্মীদের সাথে পুলিশের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে।  বুধবার সকালে ইউপিডিএফ’র তিন সংগঠনের মুখোশ প্রতিরোধ মিছিলে বাধা দিতে গেলে স্বনির্ভর বাজারে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।  এ ঘটনায় ৫ পুলিশ সদস্যসহ ১৫ জন আহত হয়েছে।  পরে পুলিশ টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

আহতদের মধ্যে তিন পুলিশ সদস্যের নাম জানা গেছে।  তারা হলেন, এএসআই সাব্বীর হোসেন, কনস্টেবল সজীব বড়ুয়া ও মোহাম্মদ আলী।  আহত পুলিশ সদস্যদের খাগড়াছড়ি সদর হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

পুলিশ জানায়, জেলা সদরের স্বনির্ভর এলাকায় সকালে ইউপিডিএফ সংগঠনটির বিবেদমান দুই গ্রুপ পূর্ব ঘোষিত পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি ঘোষণা করে।  পূর্বানুমতি না থাকায় কর্মসূচিকে ঘিরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে ঐ স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়ন করা হয়।  এক পর্যায়ে মিছিল নিয়ে এসে প্রসীত বিকাশ সমর্থিতরা লাঠি, গুলতি ও ইট পাটকেল নিয়ে পুলিশের উপর অতর্কিত হামলা চালালে এক পর্যায়ে পুলিশ টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। 

এতে পুলিশের ৫ সদস্যসহ অনন্ত ১৫ আহত হয়েছে।  অপর দিকে ইউপিডিএফ’র সংগঠক মাইকেল চাকমার অভিযোগ নিরাপত্তা বাহিনীর টিয়ারশেল ও রাবার বুলেটে তাদের ১০কর্মী আহত হয়েছে। 

এদিকে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষের আতঙ্কে স্বনির্ভর বাজারের দোকানপাট মুহুর্তের মধ্যে বন্ধ হয়ে যায়।  এনিয়ে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লে প্রায় সাড়ে ৪ঘন্টা ধরে সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করে প্রসিত বিকাশ খীসা সমর্থিত গ্রুপের কর্মীরা।  আতংকিত হয়ে এদিক ওদিক ছুটতে থাকে সাধারণ মানুষ।  পথচারি শুন্য হয়ে যায় সড়ক।  কর্মসূচিতে ইউপিডিএফ সমর্থিত পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ, হিল উইমেন্স ফেডারেশন ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরামের নেতাকর্মী অংশ নেন। 

খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এমএম সালাউদ্দিন জানান, অনুমতি না থাকায় ইউপিডিএফ (প্রসীত) গ্রুপের কর্মীদের মিছিলে বাধা দিতে গেলে তারা পুলিশের উপর হামলা চালায়।  পুলিশ বাধ্য হয়ে টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট ছুঁড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।  তবে কত রাউন্ড টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট চুড়া হয়েছে তিনি তা স্পষ্ট বলতে পারেননি। 

অপরদিকে এ ঘটনার প্রতিবাদ জানিয়ে পাহাড়ি ছাত্র পরিষদের দপ্তর সম্পাদক সমর চাকমা স্বাক্ষরিত এক প্রেস বার্তায় বলা হয়, টানটান উত্তেজনা ও সেনা-পুলিশের ব্যাপক উপস্থিতি ও বাঁধার মুখে খাগড়াছড়িতে মুখোশবাহিনী প্রতিরোধ দিবস ও শহীদ অমর বিকাশ চাকমার ২২তম মৃত্যু বার্ষিকীর প্রচারণা মিছিল করেছে বৃহত্তর পার্বত্য চট্টগ্রাম পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ (পিসিপি), হিল উইমেন্স ফেডারেশন (এইচডব্লিউএফ) ও গণতান্ত্রিক যুব ফোরাম (ডিওয়াইএফ) খাগড়াছড়ি জেলা শাখা। 

খাগড়াছড়ি সদরস্থ সংগঠনটির পার্টি অফিস থেকে মিছিলটি শুরু করে কিছুদূর যাওয়ার পর স্বনির্ভর পুলিশফাঁড়ির সামনে মিছিলটি পৌঁছালে পুলিশের বাধার মুখে পড়ে।  এসময় প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সাথে নেতা কর্মীদের তুমুল বাকবিতন্ডা চলে।  এসময় আরো ব্যাপকভাবে পুলিশ মোতায়ন করা হয়।  প্রশাসনের অন্যায় বাধাদান, অগণতান্ত্রিক ও ফ্যাসিস্ট আচরণের বিরুদ্ধে নেতাকর্মীরা মুহুর্মুহু স্লোগান দিয়ে এলাকা প্রকম্পিত করে তোলে।