৪:৩৬ পিএম, ২১ আগস্ট ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৯ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


খালেদা এতিমের টাকা আত্মসাৎ করে জেলে গিয়েছেন : শেরপুরে কৃষিমন্ত্রী

১১ মে ২০১৮, ১১:৩৯ এএম | জাহিদ


 নাঈম ইসলাম, শেরপুর প্রতিনিধি : বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য নকলা নালিতাবাড়ীর সংসদ সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী বেগম মতিয়া চৌধুরী বলেছেন, বিএনপি নেত্রী বেগম খালেদা  জিয়া দূর্নীতি ও এতিমের টাকা আত্মসাৎ করে জেলে গিয়েছেন, এতে সরকারের কোন হস্থক্ষেপ নেই। 

কৃষিমন্ত্রী বৃহস্পতিবার নকলা উপজেলা পরিষদ চত্তরে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা উপকরণ, হাসপাতাল ও কমিউনিটি ক্লিনিক সমূহে ডেলিভারি বেড ও ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবার আর্থিক সাহায্য বিতরণ অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন। 

মন্ত্রী বলেন, বিএনপির চেয়ারপার্সন এতিমের টাকা আত্মসাতের দায়ে জেলে আছেন।  দূর্নীতির মামলায় দন্ডপ্রাপ্ত ও বাংলাদেশের নাগরিকত্বহীন তারেক রহমানকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্বে দিয়েছেন, এটা দেশের মানুষের সাথে সরাসরি প্রতারণা।  শুধু তারেক রহমান নয় তার পরিবারের সকল সদস্যরাই পাসপোর্ট সারেন্ডার করে বাংলাদেশের নাগরিকত্ব বিসর্জন দিয়ে লন্ডনে কোম্পানী খুলে ব্যবসা পরিচালনা করছেন, ফলে তারা কিভাবে বাংলাদেশের রাজনৈতিক দলের নেতৃত্ব পরিচালনা করতে পারেন তা কারো বোধগম্য নয়। 

তিনি আরো বলেন, ১৯৯২ সনে বিএনপির সরকারের আমলে কয়েক লাখ রোহিঙ্গা নাগরিক বাংলাদেশে আসে কিন্তু তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া তাদের দিকে একবারের জন্য ফিরেও তাকায়নি।  বর্তমান প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের শুধু পুনঃবাসনই করেননি বরং তাদের দুঃখ দুর্ধসা নিজে পরিদর্শন করে সকল মানবিক ব্যবস্থা গ্রহণ করেছেন।  যা সারা দুনিয়ায় প্রশংসিত হয়েছে।  তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ দেশের মানুষের মঙ্গল ও ভাগ্য উন্নয়নে কাজ করে।  মানুষ শান্তিতে থাকলেই আমাদের প্রধানমন্ত্রী স্বস্থিবোধ করেন, তার অন্য কোন চাওয়া পাওয়া নেই।  একমাত্র দেশ তথা জাতির উন্নতি তার সাধনা। 

এদিনে তিনি নকলা উপজেলার ৭১টি প্রতিষ্ঠানে ৫ জোড়া করে লোহার বেঞ্চ, নকলা হাসপাতাল সহ ১১টি কমিউনিটি ক্লিনিকিকে একটি করে ডেলিভারি বেড ও কয়েকজন কেন্সার আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে নগদ ৫০ হাজার করে টাকা বিতরণ করেন। 

এসময় শেরপুরের জেলা প্রশাসক ড. মল্লিক আনোয়ার হোসেন, পুলিশ সুপার রফিকুল হাসান গনি, নকলা উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজীব কুমার সরকার, উপজেলা চেয়ারম্যান এড. মাহবুবুল আলম সোহাগ, নকলা পৌর মেয়র হাফিজুর রহমান লিটন ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীরমুক্তিযোদ্ধা শফিকুল ইসলাম জিন্নাহ, ভাইস চেয়ারম্যান মুহাম্মদ সরোয়ার আলম তালুকদার, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আলতাব আলী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।