১:২৪ এএম, ১৬ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৫ সফর ১৪৪০


খুলনা সিটি নির্বাচন বিএনপির প্রত্যাখ্যান

১৬ মে ২০১৮, ০২:৩৮ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনের ফলাফল প্রত্যাখ্যান করছি এবং প্রধান নির্বাচন কমিশনারের পদত্যাগ দাবি করছি, বললেন সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। 

বুধবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। 

রিজভী বলেন, ভোট ডাকাতি, ভোট সন্ত্রাস, জাল ভোট, ভোটকেন্দ্র দখল ও অবৈধ অস্ত্রের আস্ফালন ছাড়া আওয়ামী লীগের বিজয় নিশানে হাওয়া লাগে না।  গতকালের ভোট নিরস্ত্র ভোটারদের ওপর অবৈধ সরকারের অবৈধ ক্ষমতা প্রদর্শন। 

তিনি আরও বলেন, ভোট অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে নির্বাচন কমিশনের সদিচ্ছা নেই, সামর্থ্য ও যোগ্যতার কোনওটাই নেই। 

এছাড়া গতকাল ভোট শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার লজ্জায় গণমাধ্যমের সামনে না আসলেও ইসি সচিব গণমাধ্যমকে বলেছেন, খুলনায় চমৎকার ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হয়েছে। 

রিজভী বলেন, উনি ঠিকই বলেছেন- উল্লিখিত ভোটের পরিবেশই হচ্ছে ‘শেখ হাসিনা মার্কা’ নির্বাচন, যে নির্বাচনে দ্বিতীয় শ্রেণির পড়ুয়া ছেলে একসঙ্গে বাবার সঙ্গে গিয়ে ভোট দিতে পারে।  কেন্দ্রে যাবার আগেই ভোটারদের ভোট দেয়া হয়ে যায়, পুলিশের সহায়তায় ভোটকেন্দ্র দখল করে ভোট ডাকাতির উৎসব চলে, ভোটাররা লাইনে দাঁড়িয়ে থাকলেও ব্যালট পেপার আগেই শেষ হয়ে যায়, কেন্দ্র দখল করে আধা ঘণ্টায় ১২০০ ভোট দেয়া হয়।  তারা বলেছেন, টার্গেট ১২০০ আধা ঘণ্টা তো লাগবেই। 

খুলনা সিটি নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল ৬৫ শতাংশের ওপরে- নির্বাচন কমিশনের এমন বক্তব্যের সমালোচনা করে তিনি বলেন, ভোটার উপস্থিতি ছিল ৩০ শতাংশেরও কম।  সন্ত্রাসীদের বাধা ও সন্ত্রাসী হামলার মুখে খুলনা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটারদের অধিকাংশকেই কেন্দ্র থেকে ভোট দিতে না পেরে ফিরে যেতে হয়েছে। 


keya