৭:৩০ পিএম, ১৬ জুন ২০১৯, রোববার | | ১২ শাওয়াল ১৪৪০




চকরিয়ায় বাংলা বর্ষ বরণ

১৫ এপ্রিল ২০১৯, ০২:০৪ পিএম | জাহিদ


শাহজালাল শাহেদ, চকরিয়া : চকরিয়া উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে নানান কর্মসূচির মধ্যদিয়ে পালিত হয়েছে বাংলা নববর্ষ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ পহেলা বৈশাখ।  বাংলা বছরের নতুন বর্ষবরণ উপলক্ষে রোববার (১৪ এপ্রিল) সকালে এক বর্ণাঢ্য মঙ্গল শোভাযাত্রা বের হয়।  

বর্ণিল বেলুন ও মুখরুচক বিভিন্ন কথামালার ফেস্টুন ধারণ করে বিশাল শোভাযাত্রাটি উপজেলার গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে উপজেলা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে এক আলোচনা সভায় মিলিত হয়।  

উপজেলা নির্বাহী অফিসার নূরুদ্দীন মুহাম্মদ শিবলী নোমানের সভাপতিত্বে নববর্ষের আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া পেকুয়া আসনের এমপি আলহাজ্ব জাফর আলম।  

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আলহাজ্ব ফজলুল করিম সাঈদী, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খোন্দকার মো. ইখতিয়ার উদ্দিন আরাফাত ও চকরিয়া থানার ওসি মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী প্রমুখ।  

এসময় চকরিয়া উপজেলা পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সাফিয়া বেগম শম্পা, কক্সবাজার জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান জাহেদুল ইসলাম লিটু, উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত ভাইস চেয়ারম্যান মকছুদুল হক ছুট্টো, উপজেলা কৃষি অফিসার কৃষিবিদ মো. আতিক উল্লাহ, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মোহাম্মদ হামিদুল্লাহ মিয়া, উপজেলা শিক্ষা (প্রাথমিক) অফিসার গুলশান আক্তার, উপজেলা এলজিইডি অফিসার প্রকৌশলী কমল কান্তি পাল, উপজেলা জনস্বাস্থ্য অফিসার প্রকৌশলী কামাল হোসেন, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্মকর্তা ডাঃ মোহাম্মদ শাহবাজ, এমপির সহ-ধর্মীনি শাহেদা জাফর, ইউএনও’র সহ-ধর্মীনি নাসরিন সুলতানা নিপা, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার হাজী আবু মো. বশিরুল আলম, চিরিঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান জসীম উদ্দিন, বরইতলী ইউপি চেয়ারম্যান জালাল আহমদ সিকদার, সাহারবিল ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল, লক্ষ্যারচর ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম মোস্তফা কাইছার, ডুলাহাজারা ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল আমিন, উপজেলা রেড ক্রিসেন্টের সমন্বয়ক নুরুল আবছার, বর্ণমালা একাডেমির প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান আমিনুর রশিদ দুলাল, উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ নোমান, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি শওকত হোসেন, উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব কাউছার উদ্দিন কছির, বিশিষ্ট ক্রীড়ানুরাগি পরিমল বড়ুয়াসহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক প্রতিনিধি, বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিক ও গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।  

সভা শেষে স্থানীয় ও অতিথি শিল্পীদের পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়।  এদিকে উপজেলা প্রশাসনের তরফ থেকে আপ্যায়ন করা হয় পান্তা ইলিশের।  সমবেত সর্বস্তরের জনসাধারণ যে যার মতো করে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যের অন্যতম স্বীকৃতি পান্তা-ইলিশ আর আলু ভর্তা ভোজনে যোগ দেন।