১:৩৭ পিএম, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৪ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

South Asian College

চলতি মাসেই দৃশ্যমান হতে যাচ্ছে স্বপ্নের পদ্মা সেতু

১০ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ১২:৫৬ পিএম | রাহুল


এসএনএন২৪.কমঃ  দক্ষিণাঞ্চলের মানুষের স্বপ্নের পদ্মা সেতু এ মাসেই দৃশ্যমান হতে যাচ্ছে।  এ লক্ষে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া এবং শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে চলছে প্রকৌশলী ও শ্রমিকদের কর্মব্যস্ততা।  ইতিমধ্যে সেতুর ৩৮ নম্বর পিয়ারের ওপরের ক্যাপের খাঁচা বসিয়ে চলছে রড ঝালাইয়ের কাজ।  রড ঝালাই শেষে আগামী মঙ্গলবারের মধ্যে এই পিয়ারে কংক্রিট ঢালাই সম্পন্ন হতে পারে। 

আজ রোববার শুরু হবে ৩৭ নম্বর পিয়ার ক্যাপের খাঁচা স্থাপন কাজ।  এই ক্যাপটি অপেক্ষাকৃত বড় হলেও তা আগামী ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে কংক্রিট ঢালাই করার কথা রয়েছে। 

সূত্র মতে, ক্যাপ ঢালাইয়ের ১৪ দিনের মাথায় সুপার স্ট্রাকচার বা স্প্যান স্থাপন করার উপযোগী সময় হওয়ায় মূলত এখন থেকেই প্রকল্প এলাকায় পদ্মা সেতুকে দৃশ্যমান করার চূড়ান্ত প্রস্তুতি চলছে।  এ কারণে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের প্রতিদিনই সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা ও প্রকৌশলীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে কাজের তদারকি করছেন। 

সংশ্লিষ্ট নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, আগামী ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে তিন দিনব্যাপী পদ্মা সেতুর বিশেষজ্ঞ প্যানেলের গুরুত্বপূর্ণ সভা অনুষ্ঠিত হবে।  এ সভা চলাকালে দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞরা সেতু এলাকা পরিদর্শন করে এর কাজের খুঁটিনাটি পর্যবেক্ষণ ও প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা দেবেন।  পদ্মা সেতুর জন্য প্রয়োজনীয় ৪১টি স্প্যানের মধ্যে চীনে এ পর্যন্ত তৈরি হয়েছে ২০টি স্প্যান। 

এর মধ্যে ৭টি স্প্যান বসানোর কাজ শতভাগ সম্পন্ন হয়েছে।  ৩টি বসানোর কাজ চলছে।  বাকি ১০টি স্প্যান চীন থেকে পর্যায়ক্রমে মাওয়ায় পদ্মা সেতু প্রকল্প এলাকায় আনার পক্রিয়া চলছে।  এ ছাড়া নতুন আরও ৮টি স্প্যান তৈরির কাজ চীনে চলমান।  এর পরই বাকি ১৩টি স্প্যান তৈরির কাজ শুরু হবে। 

সূত্র জানায়, প্রতিটি স্প্যানের গড় ওজন প্রায় ৩ হাজার টন।  আর ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যের এই স্প্যান কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে পিলার পর্যন্ত বহন করে নিতে ৩৬শ' টন ওজন ধারণক্ষমতার ভাসমান ক্রেন প্রস্তুত। 

অন্যদিকে দুই সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর ১৯শ' কিলোজুলের নতুন হ্যামার দিয়ে মাওয়া প্রান্তের ১৪ নম্বর পিয়ারের পাইল ড্রাইভ কাজ চলছে পুরোদমে।  আর ২৪শ' কিলোজুলের হ্যামারটি নিয়মিত মোবিল পরিবর্তনসহ সংস্কার শেষে আবারও পাইল ড্রাইভ কাজে যুক্ত হয়েছে।  এটি জাজিরা প্রান্তের ৪১ নম্বর পিলারের পাইল ড্রাইভ করছে বলে জানা গেছে। 

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, বিশ্বে আমাজান নদীর পর পানিপ্রবাহের দিক থেকে পদ্মা নদী দ্বিতীয় অবস্থানে।  পদ্মায় এখন প্রচণ্ড গতিতে স্রোত প্রবাহিত হচ্ছে।  আর এই স্রোতের সঙ্গে লড়াই করেই সেতুর ভিত তৈরিসহ সব কাজ চলমান।  এ পর্যন্ত মূল সেতুর ৭৯টি পাইল ড্রাইভ সম্পন্ন হয়েছে। 

এ ছাড়া জাজিরা প্রান্তে সংযোগ সেতুর ১৯৩টি পাইলের মধ্যে ইতিমধ্যে ১৬৬টি পাইল বসানো হয়েছে।  মাওয়া প্রান্তে ১৭২টি পাইল বসানো হবে সংযোগ সেতুর জন্য। 

এদিকে মাওয়া প্রান্তে ১৪টি পিলারের চূড়ান্ত নকশা অনুমোদনের কাজ এখন শেষ পর্যায়ে।  ব্রিটিশ 'কাউই' নামের পরামর্শক প্রতিষ্ঠান এই নকশা তৈরির কাজ করছে।  আগামী ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নকশাটি পদ্মা সেতু সংশ্লিষ্টদের হাতে পৌঁছে যাবে। 

Abu-Dhabi


21-February

keya