৮:৩৫ পিএম, ১৯ জুলাই ২০১৯, শুক্রবার | | ১৬ জ্বিলকদ ১৪৪০




চুল পড়া প্রতিরোধে রসুন

০৩ জুলাই ২০১৯, ১০:১১ এএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম : চুল পড়া রোধে পেঁয়াজের রস গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে সেই সঙ্গে রসুনও অনেকটা ম্যাজিকের মতো কাজ করে। 

এটি শুধু চুল পড়া ঠেকায় না, মাথার ত্বকের ইনফেকশন ও খুশকি দূর করতে সহায়ক।  শুধু তাই নয়, রসুন নতুন চুল গজাতেও সাহায্য করে বলে বিশেষজ্ঞদের অভিমত। 

বিশেষজ্ঞদের মত, তেলের মতো করে চুলে ও মাথার ত্বকে রসুনের রস লাগালে অনেক দ্রুত নতুন চুল গজায়।  রসুনের রসে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ এলিসিন যা রক্তে হিমোগ্লোবিন সঞ্চালন বাড়িয়ে দিয়ে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে।  এ ছাড়া রসুনে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে কপার যা চুলকে ঘন ও স্বাস্থ্যোজ্জ্বল করে তোলে। 

রসুনের রস ব্যবহার পদ্ধতি

প্রথম ধাপ: প্রথমে রসুন পেস্ট করে এর রস বের করে নিতে হবে।  এরপর একটি এয়ার টাইট বোতলে তা সংরক্ষণ করতে হবে।  যাতে যখন প্রয়োজন তখন তেলের মতো করে এই রস চুলে ব্যবহার করা যায়। 

দ্বিতীয় ধাপ: চুল শুষ্ক হলে গোলাপজলের পানিতে তা আধাঘণ্টা ভিজিয়ে রাখতে হবে।  গোলাপজল চুলের ময়েশ্চারাইজার ধরে রাখে।  এই আধাঘণ্টা পর ভালো করে চুলে ও মাথার তালুতে রসুনের রস লাগাতে হবে। 

তৃতীয় ধাপ: চুলে রসুনের রস লাগিয়ে আধাঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে।  এরপর চিরুনি দিয়ে তা আঁচড়াতে হবে।  তারপর হালকা গরম পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলতে হবে।  এবার চুলে ভালো করে মাইল্ড শ্যাম্পু লাগিয়ে পানি দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে। 

এর ১৫ মিনিট পর কন্ডিশনার লাগিয়ে ঠান্ডা পানি দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলতে হবে। 

কতদিন বা কয় দিন পরপর ব্যবহার করবেন?

১.অতিরিক্ত হারে চুল পড়লে সপ্তাহে অন্তত দু’দিন রসুনের রস ব্যবহার করতে পারেন।  এতে এক মাসের মধ্যে মাথায় নতুন চুল গজাতে পারে। 

২.মাথার তালুতে ক্ষত থাকলে রসুনের রস ব্যবহার না করাই ভালো।  কারণ এটি ব্যবহারে ক্ষত আরও বেড়ে যেতে পারে। 

৩. মাথার ত্বক তৈলাক্ত হলে চুলে তেল দেওয়ার প্রয়োজন নেই।  এক্ষেত্রে শুধু রসুনের রস লাগাতে হবে। 


keya