১২:০১ এএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ১৪ মুহররম ১৪৪০


টাঙ্গাইলের মধুপুরে বারতীর্থ স্নান ও মেলা অনুষ্ঠিত

১৬ এপ্রিল ২০১৮, ০১:০০ পিএম | জাহিদ


হাফিজুর রহমান, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি : টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলার  শোলাকুড়ীতে সোমবার সনাতন ধর্মাবলম্বীদের বারতীর্থ স্নান ও মেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। 

শত বছরের ও অধিক সময় ধরে প্রতি বছর বৈশাখ মাসের অমাবস্যা তিথিতে এ পূন্য স্নান অনুষ্ঠিত হয়। 

টাঙ্গাইল,ময়মনসিংহ,জামালপুর, গাজীপুর ও সিরাজগঞ্জ জেলার বিভিন্ন অঞ্চলের পুন্যার্থীরা এ নির্দিষ্ট সময়ে তাদের মনোবাসনা পূর্ণ করার লক্ষে পূন্য স্নানে অংশ নেয়। 

তারা চিনি-কলা সহ বিভিন্ন দ্রবাদি জলে দান পূর্বক তাদের স্বীয় দেবতাকে তুষ্ট করার জন্য একাগ্রচিত্তে  স্নান করে তাদের গ্লানি মুছে ফেলার প্রতীজ্ঞা করে। 

কথিত আছে, নাটোরের  জমিদার রাজা জগদীন্দ্র নাথ রায় বাহাদুরের মাতা  অসুস্থবস্থায় বারটি তীর্থ স্থানের গঙ্গা জলে স্নান করার ইচ্ছা পোষণ করেন।  তার বিশ্বাস ওই গঙ্গা জলে স্নানকরলে তিনি সুস্থ হয়ে উঠবেন।  মাতার ইচ্ছা  পূরণ করতে জমিদার ১২ টি তীর্থ স্থান থেকে গঙ্গা জল সংগ্রহ করে শোলাকুড়ীতে বিশালকার পুকুর খনন পূর্বক সেইপুকুরে তার মাকে স্নান করায়।   এতে তার মা আরোগ্য লাভ করেন। 

স্নান উৎসবে আসা জামালপুরের দিগপাইত এলাকার বিপ্লব সরকার, রাজন দাস ও মধুপুরের ঝর্না ভৌমিক জানায়, তারা প্রতি বছর এ পূর্ন স্নানে অংশ নেয়।  এবং তাদের মনোবাসনা পূর্ন হয়। 

এ পুন্য স্নানৎসবে হাজার হাজার পুন্যার্থীর সাথে মধুপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা রমেন্দ্র নাথ  বিশ্বাস স্বস্ত্রীক অংশ গ্রহন করেন। 

পুন্যস্নান আয়োজক কমিটির পক্ষে শোলাকুড়ী ইউপি চেয়ারম্যার মো.আখতার হোসেন জানায়, পতিবছর এ স্নানোৎসবে লক্ষাধিক পুন্যার্থীর সমাগম ঘটে।  অনুষ্ঠানের নিরাপত্তায় উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি  স্থানীয়রাও ভূমিকা রাখছে।  এবছরও তার ব্যাত্যয় ঘটেনি। 


keya