১:০৪ এএম, ২০ জুন ২০১৯, বৃহস্পতিবার | | ১৬ শাওয়াল ১৪৪০




ঠাকুরগাঁওয়ে ৩ বছরের শিশুর গলাকাটা লাশ উদ্ধার, আটক-৪

২৮ এপ্রিল ২০১৭, ০২:৫১ এএম | সাদি


বিদান দাস, ঠাকুরগাঁও : তিন বছর বয়সের একটি শিশুকে নৃশংস কায়দায় কেউ হত্যা করতে পারে তা নিয়েই আতংক আর আলোচনা চলছে পুরো রাণীশংকৈল সহ ঠাকুরগাঁও জেলা জুড়ে।  ফুটফুটে শিশুটি মাত্র দুদিন আগেও ছিল বাবা-মায়ের আদর আর ভালোবাসায়।  তারপর হুট করে কোথাও পাওয়া যাচ্ছিলোনা তার খোঁজ।  কয়েকঘন্টা পরই  একটি অজ্ঞাত নাম্বার থেকে ফোন আসে শিশুটির বাবার মোবাইলে।  দাবী করা হয় ৫ লাখ টাকা প্রদান করলে শিশুটিকে ফেরত দেওয়া হবে। 

শিশুটিকে ফিরে পেতে সবকিছু বিক্রি করে হলেও বাবা-মা রাজী ছিলেন অপহরনের টাকা প্রদানে।  কিন্তু তারপর আর কোন ফোন আসেনি অপহরনকারীদের কাছ থেকে।  অবশেষে শিশু অপহরণের দুদিন পর শুক্রবার(২৮ এপ্রিল) সকালে গলাকাটা অবস্থায় অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করলো পুলিশ।  নিহত শিশুটির নাম আব্দুল কাফি তোশা(৩)।  নিহত তোশা ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল উপজেলার ৮নং নন্দুয়া ইউনিয়নের মুনিষগাঁও গ্রামের মো. মাসুদ রানার ছেলে। 

শুক্রবার সকালে ৮নং নন্দুয়া ইউনিয়নের মুনিষগাঁও সিরাজ মাস্টারের বাড়ির খড়ের গাদা থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।  এ ঘটনায় শিশুটির পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জন সন্দেহভাজন ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ। 

জানা যায়, গত ২৬ তারিখ সকাল আনুমানিক ৯টার শিশু তোশা অপহৃত হয়।  অপহরণের ৬ ঘণ্টা পরই ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়।  মুক্তিপণ চাওয়ার পর থেকেই আর কোনো ফোন করেনি অপহরণকারীরা।  পরে আজ সকালে শিশু তোশার গলাকাটা অর্ধগলিত মরদেহ উদ্ধার করে রানীশংকৈল থানা পুলিশ। 

এ বিষয়ে রানীশংকৈল থানার ওসি মো, রেজাউল করিম ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, আজ দুদিন যাবৎ শিশুটি নিখোঁজ ছিল।  অনেক চেষ্টা করেও শিশু তোশাকে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।  এ ঘটনায় প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৪ জনকে আটক করা হয়েছে।