১১:৩১ পিএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮, রোববার | | ৭ রবিউস সানি ১৪৪০




ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলোনা আরেফার!

১৫ নভেম্বর ২০১৭, ০৩:৫৫ এএম | সাদি


আবু তালেব, হাটহাজারী প্রতিনিধি : আর মাত্র ৪ মাস পর অনুষ্ঠিত হবে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা (এইচএসসি)।  ওই পরীক্ষায় অংশগ্রহনের যোগ্যতা অর্জন করতে চলতি মাসের ১৩ নভেম্বর আরম্ভ হওয়া নির্বাচনী পরীক্ষার অংশগ্রহন করে কুয়াইশ-বুড়িশ্চর শেখ মোহাম্মদ সিটি করপোরেশন কলেজের শিক্ষার্থী আরেফা আবেদিন খান রিপা।  এরই ধারাবাহিকতায় মঙ্গলবার ইংরেজী দ্বিতীয় পত্র পরীক্ষা শেষে বাড়ির ফেরার জন্য কলেজ ক্যাম্পাসের সামনে চট্টগ্রাম-রাউজান-কাপ্তাই সড়কে গাড়ির জন্য অপেক্ষা। 

ভ্যাগ্যের একি নির্মম পরিহাস তার এ অপেক্ষার প্রহর কাটলো না।  আর বাড়ি ফেরাও হলো না।  চলে গেলেন এ পৃথিবীর মায়া সাঙ্গ করে পরপারে।  ডাক্তার হওয়ার স্বপ্ন পূরণ হলো না আরেফার।  অশ্রুসিক্ত কণ্ঠে এমনটা বলে বিলাপ করতে করতে কণ্যার শোকে চমেক হাসপাতালে বারংবার মূর্ছা যাচ্ছেন মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত আরেফার গর্ভধারিনী মা পারভিন আবেদীন খান।      

আরেফার ছোট ভাই এসএসসি পরীক্ষার্থী জাহেদ আবেদীন খান রিমনকে বুকে জড়িয়ে তাদের পিতা মধ্যপ্রাচ্যে ফেরত জয়নাল আবেদীন খান তার  একমাত্র কণ্যার শোকে মূহ্যমান।  আরেফার পিতা-মাতা ও আত্মীয় স্বজনের আহাজারিতে চমেক হাসপাতালে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়।  তার (আরেফা) পিতা-মাতাকে সান্ত্বনা দেওয়ার কোন ভাষা খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না বলে জানান আরেফার চাচাতো ভাই ফাহিম। 

তিনি জানান, আরেফার পড়াশুনায় তাকে আমি সহযোগিতা করে আসছি।  বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্রী হিসেবে সে একজন মেধাবী ছাত্রী ছিল।  গত তিন দিন আগে সে আমাকে বলেছিল এইচএসসি পরীক্ষা পাস করে সে ডাক্তারী পড়বে।  সে একজন ডাক্তার হবে।  কিন্তু তার স্বপ্ন স্বপ্নই রয়ে গেল।  এছাড়া তার এ অকাল মৃত্যুতে তার বন্ধু-বান্ধব ও তার পরিবারের মাঝে নেমে এল শোকের ছায়া।  তার পরিবারে পরিবারে চলছে শোকের মাতম। 

প্রসঙ্গত,  মঙ্গলবার (১৪ নভেম্বর) সন্ধ্যা সাড়ে ৫টার দিকে চট্টগ্রাম-রাউজান-কাপ্তাই সড়কে এ দূর্ঘটনায় আহত হয়ে চাঁদগাও থানাধীন ৪নং ওয়ার্ডের চৌধুরী বাড়ির জয়নাল আবেদীনের কণ্যা আরেফা আবেদিন খান রিপা চমেক হাসপাতালে মৃত্যু রবণ করেন।