২:৫৮ এএম, ১৯ অক্টোবর ২০১৮, শুক্রবার | | ৮ সফর ১৪৪০


‘তিতলি’ দুর্বল, ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস ভূমিধসের আশঙ্কা

১২ অক্টোবর ২০১৮, ০৬:০০ পিএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ দুর্বল হয়ে ভারতের উড়িষ্যার স্থলভাগে গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।  এটি ভারী বৃষ্টি ঝরিয়ে ক্রমশ দুর্বল হতে হতে বাংলাদেশের স্থলভাগের দিকে এগোচ্ছে। 

এর প্রভাবে বাংলাদেশেও ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। 

এমনকি ভারী বৃষ্টিতে চট্টগ্রামের পাহাড়ি এলাকায় ভূমিধসের আশঙ্কার কথাও জানিয়েছেন আবহাওয়াবিদরা।  একই সঙ্গে সমুদ্র বন্দরগুলোতে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত বহাল রয়েছে। 

শুক্রবার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত ঢাকায় কয়েক দফা মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হয়েছে।  আগামী দু’দিন বৃষ্টির এই প্রবণতা অব্যাহত থাকতে পারে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদফতর। 

আবহাওয়া অধিদফতর থেকে জানা গেছে, শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত ঢাকায় ২৩ মিলিমিটার বৃষ্টি হয়েছে।  এ সময়ে সবচেয়ে বেশি বৃষ্টি হয়েছে চট্টগ্রামে ৫৮ মিলিমিটার। 

হ্যারিকেনের শক্তি নিয়ে বৃহস্পতিবার সকালে ভারতের উড়িষ্যা-অন্ধ্র প্রদেশের উপকূলে আঘাত হানে ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’।  প্রবল এই ঘূর্ণিঝড়ের তাণ্ডবে সেখানে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে, মারা গেছে ৮ জন। 


বৃহস্পতিবার সর্বশেষ আবহাওয়ার বিশেষ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ভারতের উড়িষ্যা এবং কাছাকাছি উপকূলীয় এলাকায় অবস্থারত ঘূর্ণিঝড় ‘তিতলি’ সামান্য উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর এবং দুর্বল হয়ে একই এলাকায় গভীর নিম্নচাপে পরিণত হয়েছে।  এটি আরও উত্তরপূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে ক্রমশ দুর্বল হতে পারে।  গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় বায়ুচাপের তারতম্যের আধিক্য বিরাজ করছে। 

আরও বলা হয়েছে, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালার সৃষ্টি হচ্ছে।  উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরসমূহের উপর দিয়ে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। 

এজন্য চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।  উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থান করা সকল মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলেছে আবহাওয়া বিভাগ। 

ভারতের আবহাওয়া অধিদফতর দুপুরে জানিয়েছে, ‘তিতলি’ দুর্বল হয়ে পশ্চিমবঙ্গের উপকূলীয় এলাকার দিকে এগিয়ে যাচ্ছে।  এটি আরও দুর্বল হয়েছে আগামী ৬ ঘণ্টার মধ্যে গভীর নিম্নচাপ থেকে নিম্নচাপে পরিণত হবে। 


অপরদিকে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের ভারী বৃষ্টির সতর্ক বার্তায় বলা হয়েছে, উড়িষ্যার গভীর নিম্নচাপের প্রভাবে শুক্রবার দুপুর ১২ টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টায় খুলনা, বরিশাল, চট্টগ্রাম, ঢাকা, রাজশাহী, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও ভারী (৪৪ থেকে ৮৮ মিলিমিটার) থেকে অতিভারী (৮৯ মিলিমিটার বা এর বেশি) বৃষ্টি হতে পারে।  ভারী থেকে অতিভারী বৃষ্টির প্রভাবে চট্টগ্রাম বিভাগের কোথাও কোথাও ভূমিধস হতে পারে। 

এছাড়া অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য এক সতর্ক বার্তায় বলা হয়েছে- পাবনা, ঢাকা, ফরিদপুর, মাদারীপুর, যশোর, কুষ্টিয়া, খুলনা, বরিশাল, পটুয়াখালী, নোয়াখালী, কুমিল্লা, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চলসমূহের উপর দিয়ে দক্ষিণ বা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৬০ থেকে ৮০ কি.মি. বেগে বৃষ্টি বা বজ্রবৃষ্টিসহ অস্থায়ীভাবে ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। 

এসব এলাকার নদীবন্দর সমূহকে ২ নম্বর নৌ হুঁশিয়ারী সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।  অন্যান্য এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। 


keya