১:৩০ পিএম, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৪ জমাদিউস সানি ১৪৩৯

South Asian College

থেমেছে বৃষ্টি, চলছে খেলা শুরুর প্রস্তুতি

০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭, ০১:০২ পিএম | এন এ খোকন


এসএনএন২৪.কম : নিজেদের দুর্ভাগা ভাবতেই পারেন স্মিথ-ওয়ার্নাররা।  সিরিজে এই প্রথমবার বাংলাদেশকে বেশ চেপে ধরেছিল অস্ট্রেলিয়া।  প্রথম ইনিংসে বড় লিডের স্বপ্ন দেখছিল সফরকারী দলটি।  এমন হয়ে বৃষ্টি বাধা হয়ে দাঁড়ায় অসিদের সামনে।  তৃতীয় দিনের খেলা শুরুর ঠিক কিছুক্ষণ আগে শুরু হয় বৃষ্টি।  প্রায় তিন ঘণ্টা পর বৃষ্টি থেমেছে।  মাঠ পরিচর্যায় কাজ চলছে।  আশা করা হচ্ছে, দ্রুতই তৃতীয় দিনের খেলা শুরু হবে। 

সিরিজটা শুরুর আগেই বৃষ্টির শঙ্কা ছিল।  তবে শেষ পর্যন্ত নির্বিঘ্নেই প্রথম টেস্ট শেষ হওয়ার পর চট্টগ্রামের প্রথম দুটি দিনও ভালোভাবেই পার হয়।  বিপত্তি বেধেছে তৃতীয় দিনের শুরুতে।  বন্দরনগরীতে সকালে সূর্য অবশ্য তার নিজস্ব তেজ ছড়িয়ে যাচ্ছিল।  ম্যাচ শুরু হওয়ার আধাঘণ্টা আগে কালো হয়ে আসে চট্টগ্রামের আকাশ।  এরপরই শুরু হয় অঝোরধারায় বৃষ্টি। 

প্রথম টেস্টে হারের পর দ্বিতীয় টেস্টে ঘুরে দাঁড়িয়েছে স্টিভেন স্মিথের অস্ট্রেলিয়া।  বাংলাদেশের ৩০৫ রানের জবাবে দ্বিতীয় দিন শেষে ২ উইকেটে ২২৫ রান করেছে অস্ট্রেলিয়া।  ওয়ার্নার ৮৮ ও পিটার হ্যান্ডসকম্ব ৬৯ রানে ব্যাট করছেন।  বাংলাদেশের প্রথম ইনিংস থেমেছে ৩০৫ রানে। 

আজ সময়মতো তৃতীয় দিনের খেলা শুরুর প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন দুদলের ক্রিকেটাররা।  মাঠে অনুশীলনেও নেমেছিলেন তামিম-সাকিবরা।  তবে সকাল সাড়ে ৯টার পরই শুরু হয় বৃষ্টি।  এরপরই উইকেটসহ মাঠের অনেকটা অংশ ঢেকে দেওয়া হয়।  বৃষ্টির কারণে ম্যাচের একটি সেশন বা দিন নষ্ট হলে সেটি কিন্তু বাংলাদেশের জন্য আশীর্বাদই বলতে হবে।  কারণ, মিরপুর টেস্ট ম্যাচটা জিতে এরই মধ্যে ১-০ ব্যবধানে এগিয়ে আছে মুশফিকুর রহিমের দল।  তবে অস্ট্রেলিয়ার জন্য এটি ডু অর ডাই ম্যাচ।  ম্যাচটি ড্র বা পরিত্যক্ত হলে সিরিজ কিন্তু হেরে যাবে সফরকারীরা। 

বৃষ্টি থামার পর টিকে থাকল অস্ট্রেলিয়ার বড় লিড নেওয়ার স্বপ্নটা।  ওয়ার্নার-হ্যান্ডসকম্বরা যদি প্রথম দুটি সেশন যদি খেলতে পারেন তাহলে এই ম্যাচে জয়ের সম্ভাবনাটা বেড়ে যাবে তাদের।  অন্যদিকে বাংলাদেশও অস্ট্রেলিয়াকে দ্রুত গুটিয়ে দিতে চাইবে।  তৃতীয় দিনের উইকেট যদি আরেকটু স্পিন ধরে তাগলে কিন্তু টাইগার স্পিনারদের মোকাবেলা করাটা কঠিনই হবে যাবে অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যানদের জন্য।   

Abu-Dhabi


21-February

keya