১:৩৮ পিএম, ২১ এপ্রিল ২০১৮, শনিবার | | ৫ শা'বান ১৪৩৯

South Asian College

দুই বিচারক যা বললেন লাক্স সুপারস্টারের

০৪ জানুয়ারী ২০১৮, ০৮:৩৩ এএম | রাহুল


এনএনএন২৪.কম : প্রথম আলোশুরু হয়ে গেছে লাক্স সুপারস্টার প্রতিযোগিতার নিবন্ধন প্রক্রিয়া। 

বুধবার সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এবারের আয়োজনের ঘোষণা দেওয়া হয়।  ঢাকার একটি পাঁচতারকা হোটেলে ঘোষণা করা হয় এবারের আয়োজনের বিচারকের নামও।  ঘোষণা অনুযায়ী চ্যানেল আই প্রেজেন্টস লাক্স সুপারস্টার এবারের আসরের বিচারকেরা হলেন মডেল ও নৃত্যশিল্পী সাদিয়া ইসলাম মৌ, গায়ক তাহসান খান এবং চিত্রনায়ক আরিফিন শুভ। 

ব্যক্তিগত কারণে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত থাকতে পারেননি সাদিয়া ইসলাম মৌ।  তবে তাহসান ও আরিফিন শুভ উপস্থিত থেকে অনুষ্ঠান ও প্রতিযোগীদের বাছাইয়ের প্রক্রিয়া নিয়ে নানা কথা বলেন। 

তাহসান বলেন, ‘এর আগে একবার লাক্স সুন্দরী প্রতিযোগিতার বিচারকের দায়িত্ব পালন করেছি।  তখন অন্যদের তুলনায় আমি ছিলাম জুনিয়র বিচারক।  এবার সিনিয়র বিচারক।  আমি বিচারকের আসনে বসে দুটি বিষয় খেয়াল রাখব।  প্রথমত, সুষ্ঠুভাবে বিচারকাজ পরিচালনা করা।  দ্বিতীয়ত, অনুষ্ঠানটি যেন নতুনত্ব ও ভিন্নমাত্রা পায়, সেদিকে খেয়াল রাখব। ’

এত বছর ধরে সুন্দরী প্রতিযোগিতার এমন একটি আয়োজন চালিয়ে নেওয়ার জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান তাহসান।  বলেন, ‘আমরা এমন একটি টেলিভিশন শো করব, যার মাধ্যমে বাংলাদেশের দর্শকেরা বিনোদিত হবেন।  দেশের চ্যানেলগুলোতে অনেক রিয়্যালিটি শো হয়েছে, শুধু একটি শো বছরের পর পর ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে পেরেছে।  রিয়্যালিটি শোর মানটা ধরে রাখতে পারার জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ।  দিন শেষে আমরা বাংলাদেশকে বিনোদিত করতে চাই।  যথাসাধ্য চেষ্টা করব, বাংলাদেশের মানুষ যখন টেলিভিশন ছাড়বে, তখন যেন ভারতীয় চ্যানেল না দেখে আমাদের দেশের চ্যানেল দেখেন, চ্যানেল আই দেখেন। ’

এবারই প্রথম লাক্স সুপারস্টারের মতো কোনো রিয়্যালিটি শোতে বিচারকের আসনে বসতে যাচ্ছেন ঢালিউডের এ সময়ের জনপ্রিয় নায়ক আরিফিন শুভ।  তিনি বিষয়টি নিয়ে যেমন রোমাঞ্চিত, আবার নার্ভাসও।  বিচারকের আসনে বসতে যাওয়া এই নায়ক বললেন, ‘আমার কয়েকটি সিনেমায় পর্দা ভাগাভাগি করেছি মম, মিম, কুসুমসহ অনেকের সঙ্গে।  এঁরা সবাই লাক্স সুপারস্টার প্রতিযোগিতা থেকেই এসেছেন।  আর যখনই আমাকে এই অনুষ্ঠানের বিচারকের প্রস্তাব দেওয়া হয়, তখন ভাবলাম, বিষয়টি কতটা কষ্টসাধ্য হবে।  এখান থেকে যিনিই বিজয়ী হবেন, তিনিই পরে আমাদের মতো অনেকের সঙ্গে পর্দা ভাগাভাগি করবেন। ’

এবারের আয়োজনে শুভর সবচেয়ে বেশি ভালো লেগেছে ভাবনাটা।  তিনি বলেন, ‘সবচেয়ে ভালো লেগেছে, দেখিয়ে দাও অদেখা তোমায়।  আমরা জানি, সুন্দর সবাই হয়।  তবে প্রতিভা, চাহনিই কিন্তু সব নয়।  এসবের সঙ্গে পেশাদারি, সিনসিয়ারিটি অনেক বড় ব্যাপার।  এক রাতে সুপারস্টারের জন্ম হয় না, যিনি শ্রেষ্ঠত্বের মুকুটজয়ী হবেন, তাঁকে প্রমাণ করতে হবে।  দেখা যাবে যে এঁরাই পরবর্তী সময়ে আমার মতো অনেকের ‘লিডিং লেডি’ হবেন পর্দায়।  আমি অনেকটা নার্ভাস।  এতগুলো মুখ থেকে একজনকে বের করে আনা খুব একটা সহজ হবে না।  অপেক্ষা করছি, বাহ্যিক সৌন্দর্যের বাইরে দেখার জন্য মানুষের যে মানবিক সৌন্দর্যের দিকগুলো আছে, তা তুলে ধরার।  আমি খুবই এক্সাইটেড। ’

Abu-Dhabi


21-February

keya