৬:৪০ এএম, ২১ অক্টোবর ২০১৮, রোববার | | ১০ সফর ১৪৪০


দ্বিতীয় বারের মত দেশ সেরা লালমনিরহাট পুলিশ

১১ জানুয়ারী ২০১৮, ০২:২৪ পিএম | জাহিদ


আজিজুল ইসলাম বারী, লালমনিরহাট প্রতিনিধি: পুলিশ বাহিনীর অনেক দায়িত্বের মধ্যে অন্যতম চোরাচালান ও মাদক দ্রব্য নির্মুল করা।  সীমান্তবর্তি জেলা হিসেবে লালমনিরহাটে এ কাজটি অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন পুলিশ বাহিনীতে।  এ দায়িত্বটি গুরুত্বসহকারে পালন করায় লালমনিরহাট জেলা পুলিশকে “গ গ্রুপে” দ্বিতীয় বারেরর মত দেশ সেরা হিসেবে নির্বাচন করেছেন পুলিশের মহাপরির্দশক (আইজিপি)।  বুধবার (১০জানুয়ারি) বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর প্রধান(আইজি) একেএম শহীদুল হক মাদক উদ্ধারের জন্য লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হককে দ্বিতীয় বারের  দেশ সেরা হিসেবে ক্রেষ্ট ও সনদ প্রদান করেন। 

এর আগে গত বছরও চোরাচালান ও মাদকদ্রব্য নির্মূলে গুরুত্ব সহকারে দায়িত্ব পালন করায় লালমনিরহাট জেলা পুলিশ ‘গ গ্রুপে’ দেশ সেরার ক্রেস্ট ও সনদ পায়।  জানা গেছে, ভারতীয় সীমান্তবর্তী এ জেলার মাদক নিয়ন্ত্রণের চ্যালেঞ্জ নিয়ে ২০১৬ সালের ১৯ জুলাই পুলিশ সুপার হিসেবে যোগ দেন এসএম রশিদুল হক।  এরপর থেকে একের পর এক অভিযানে ও জেলায় কর্মরত পুলিশ সদস্যদের তৎপরতায় প্রতিনিয়ত মাদকসহ ব্যবসায়ীদের গ্রেফতার করে পুলিশ। 

একপর্যায়ে পুলিশি তৎপরতায় দেড় সহস্রাধিক মাদক ব্যবসায়ী আনুষ্ঠানিকভাবে মাদক ছেড়ে দিয়ে নতুন জীবনযাপনের শপথ নেন।  শুধু অভিযানেই সীমাবদ্ধ ছিলো না।  মাদক, সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদসহ সামাজিক বিভিন্ন অপরাধ নির্মূলে প্রতিটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক শিক্ষার্থী ও পাড়া-মহল্লায় গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে সভা সেমিনারও করেছেন লালমনিরহাট পুলিশ সুপার।  ফলে ২০১৭ সালে মাদকের সঙ্গে চোরাচালানরোধে 'গ গ্রুপে' দ্বিতীয় স্থান অর্জন করে লালমনিরহাট জেলা পুলিশ। 

শুধু তাই নয় গত দেড় বছরে রংপুর রেঞ্জের সেরা পুলিশ সুপার হিসেবে ৬টি ক্রেস্ট অর্জন করেন লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক।  লালমনিরহাট পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক জানান, এ অর্জন লালমনিরহাটবাসীর , এ অর্জন লালমনিরহাট পুলিশের প্রতিটির সদস্যের।  এ জেলাকে মাদক মুক্ত করতে সর্বস্থরের মানুষের সহযোগিতা কামনা করেন তিনি। 


keya