৮:৪২ এএম, ২১ নভেম্বর ২০১৭, মঙ্গলবার | | ২ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

ধুনটে ঋণ গৃহীতার গরু লুট করেছে এনজিও কর্মীরা

১২ নভেম্বর ২০১৭, ১১:৫৩ পিএম | সাদি


এম. আর আলম, বগুড়া প্রতিনিধি: বগুড়ার ধুনট উপজেলায় সাপ্তাহিক কিস্তির টাকা পরিশোধ করতে না পারায় ঋণ গৃহীতা দিনমজুরের গোয়ালঘর থেকে একটি গরু লুট করেছে এনজিও কর্মীরা।  রোববার বিকেলের দিকে ধুনট উপজেলা সদরের পারধুনট গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। 

স্থানীয় সুত্রে জানা, পারধুনট গ্রামের জাকির হোসেন ও তার স্ত্রী রেশমা খাতুন যৌথ নামে ১৫ জুন বাংলাদেশ এক্সটেশন এ্যডুকেশন সার্ভিসেস (বিজ) নামে বে-সরকারী সংস্থার ধুনট শাখা থেকে ৩৪ হাজার টাকা ঋণ গ্রহন করেন।  সাপ্তাহিক ৮৫০টাকা কিস্তি ও ৫০টাকা সঞ্চয়সহ ৯০০ টাকা করে ৪৬ কিস্তিতে ঋন পরিশধের কথা ছিল। 

দিনমজুর এনজিও’র ঋণের টাকার সাথে নিজেদের সঞ্চয় দিয়ে ৪৭ হাজার টাকায় একটি গরু ক্রয় করেন।  ঋণ গ্রহনের পর থেকে তাঁরা কিস্তির ৮৫০ টাকা হিসাবে ১১ হাজারা ৫০ টাকা ও সঞ্চয় ৫০টাকা হিসাবে ৬৫০ টাকাসহ ১৩ কিস্তিতে ১১ হাজার ৭০০ টাকা পরিশোধ করেছে।  এরপরও তিন কিস্তির টাকা বকেয়া রয়েছে। 

রোববার ৩ কিস্তির টাকা পরিশোধের কথা ছিল।  তাই সকাল ১১টার দিকে সুমি নামে এনজিওর এক মাঠকর্মী কিস্তির টাকা আদায়ের জন্য দিনমজুরের বাড়িতে যান।  কিন্তু ওই দিনমজুর কিস্তির টাকা দিতে না পারায় মাঠ কর্মী অফিসে ফিরে আসেন। 

পরে একই অফিসের অন্যান্য কর্মীদের সহযোগীতায় বিকেলের দিকে দিনমজুরের গোয়ালঘর থেকে গরু নিয়ে অফিসে ফিরে আসেন।  সন্ধা সাড়ে ৬টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত এ বিষয়টি সমঝোতার চেষ্টা চলছে। 

ঋণ গৃহিতা জাকির হোসেন বলেন, আমি দিনমজুর।  এসময় দিন মজুরের কাজ নাই।  তাই পরিবার পরিজন নিয়ে অতিকষ্টে দিনযাপন করছি।  তারপরও গরু বিক্রি করে ঋণের টাকা পরিশোধ করতে চেয়েছিলাম।  কিন্তু মাঠ কর্মীরা আমার কোন কথা না শুনে গোওয়ালঘর থেকে গরুটি জোর করে নিয়ে গেছে। 

বাংলাদেশ এক্সটেনশন এ্যডুকেশন সার্ভিসেস (বিজ) ধুনট শাখার ব্যবস্থাপক আহসান হাবিব বলেন, মাঠ কর্মীর সাথে কিস্তির টাকা পরিশোধ করা নিয়ে বিরোধের জের ধরে গরু নিয়ে আসা হয়েছে।  তবে শর্ত সাপেক্ষে ঋণ গৃহীতাকে গরু ফেরত দেওয়া হবে।