১১:০৬ এএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৭, শনিবার | | ২৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৯

South Asian College

ধুনটে বীজতলায় সোনালী ধানের স্বপ্ন বুনছেন চাষীরা

০৬ ডিসেম্বর ২০১৭, ০৬:৩৪ পিএম | সাদি


এম. আর আলম, বগুড়া প্রতিনিধি: চারিদিক ঘন কুয়াশা।  বাড়ছে শীতের তীব্রতা।  তারপরও থেমে নেই কৃষকের কর্মযজ্ঞ।  ভোরের কুয়াশা মাড়িয়ে হিম শীতল কাঁদা পনিতে নেমে পড়েন।  অপেক্ষাকৃত নীচু জমি বীততলার উপযোগী।  কেউ জমির আগাছা মুক্ত করছে।  হলের বলদ না থাকায় অনেকে জোয়াল কিংবা মই কাঁধে টেনে জমি সমতল করছে।  কেউবা আবার কাঁদা মাটিতে সোনালী ধানের বীজ বুনছেন।  চলতি মৌসুমে বোরো ধানের আগাম বীজতলা তৈরীর এমন কর্মযজ্ঞ চোখে পড়ে বগুড়ার ধুনট উপজেলার গ্রামীন জনপদে ফসলের মাঠে।  

সরেজমিন দেখা যায়, আমন ধান কাটা প্রায় শেষ হয়েছে।  মাড়াই কাজে চলছে কৃষকের ব্যস্ততা।  এরই মধ্যে এ অঞ্চলের বোরো ধানের বীজ তৈরীর সময় হয়ে গেছে।  তাই আমন ধানের পরে বোরো ধানের বীজলতা তৈরীতে আবারো ব্যস্ত হয়ে পড়েছে।  একই সঙ্গে বাড়িতে বীজও জাগ দিয়েছেন অনেক কৃষক।  ঘন কুয়াশা আর শৈত্যপ্রবাহের হাত থেকে বীজতলায় ধানের চারা রক্ষা ও গেল মৌসুমে বন্যায় ফসলের ক্ষয়ক্ষতি পুষিয়ে নিতে সময়ের কিছুটা আগেই কৃষকেরা বীজতলার জমি তৈরীতে ব্যস্ত সময় পার করছে।  

কৃষি বিভাগ সূত্রে জানা যায়, এ বছর ১৬ হাজার ৮০০ হেক্টর জমিতে বোরো ধান চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারন করা হয়েছে।  এর বিপরীতে প্রায় এক হাজার হেক্টর জমিতে বোরো ধানের বীজতলা তৈরী করা হবে।  ইতিমধ্যে প্রায় ৭০০ হেক্টর জমিতে বীজতলা তৈরীর কাজ শেষ হয়েছে।  তবে এবার বীজতলার লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে মাঠ পর্যায়ের কৃষি কর্মকর্তারা মত প্রকাশ করেন।  

উপজেলার বিভিন্ন গ্রামের মাঠে বোরো ধানের বীজতলা তৈরীর সময় কথা হয় কয়েকজন কৃষকের সাথে।  তাঁরা জানান, বর্তমানে আমন ধান ঘরে তোলার পাশাপাশি বোরোর বীজতলা তৈরীর কাজে ব্যস্ত আছি যাতে সঠিক সময়ে বোরো ধান লাগানো সম্ভব হয়।  এছাড়া এবার আমন ধানের ভালো ফলন ও দাম ভালো পেয়েছি।  তাই বোরো ধানের বীজের জন্য ব্রি ধান ৩৪ জাতের একমণ ধান ক্রয় করেছি।  আশা করছি আমন ধানের মতো বোরো ধানের ফলন ভালো পাব। 

এদিকে, এবার বোরো ধানের বীজের দাম অনেক বেশী।  তবে ধানের দাম ভালো পাওয়ায় বোরো বীজ কিনতে অতোটা কষ্ট পেতে হচ্ছে না।  যদি ধানের দাম ভালো না থাকতো তাহলে বীজ কিনতে হিমশিক খেতে হতো। 

এ বিষয়ে উপজেলা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা আব্দুস ছোবাহান বলেন, এ বছর আমন ধানের দাম ভালো থাকার কারণে বোরো ধান চাষেও কৃষক আগ্রহী হয়ে উঠেছে।  তবে আবহাওয়া অনুকূল থাকলে আমন ধানোর মতোই বোরো ধানের ভালো ফলন হবে।  এর ফলে কৃষক ধানের ভালো দামও পাবে।