৫:০৯ এএম, ১৯ জুন ২০১৮, মঙ্গলবার | | ৫ শাওয়াল ১৪৩৯

South Asian College

ধুনটে ব্যাংক থেকে মুক্তিযোদ্ধার ঈদ বোনাসের টাকা খোয়া

১০ জুন ২০১৮, ০২:২০ পিএম | মুন্না


এম.আর আলম, বগুড়া প্রতিনিধি : বগুড়ার ধুনট উপজেলায় ব্যাংক থেকে আজাহার আলী ভুইয়া (৬৭) নামে এক মুক্তিযোদ্ধার ঈদ বোনাসসহ মাসিক সন্মানী ভাতার সাড়ে ৩৩ হাজার টাকা খোয়া গেছে।  রোববার সকাল সোয়া ১০টার দিকে সোনালী ব্যাংকের ধুনট শাখায় এ ঘটনা ঘটে। 

ব্যাংক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের উজালশিং গ্রামের মৃত: মোজদার হোসেনের ছেলে আজাহার আলী ভুইয়া সরকারি ভাতাভোগী মুক্তিযোদ্ধা।  রোববার সকাল ১০টার দিকে তিনি সন্মানী ভাতা ও ঈদ বোনাসের অংশ থেকে সাড়ে ৩৩ হাজার টাকা উত্তোলনের জন্য ব্যাংকে চেক জমা দেন।  যাহার হিসাব নং ০৬১০১১০০৮৭১৮৫, চেক নং ৪৫৪৫৭৬১।  মুক্তিযোদ্ধা মুল চেক জমা দিয়ে টোকেন (মুড়ি) নিজের পাঞ্জাবির পকেটে রেখে ব্যাংকের ভেতর অপেক্ষা করেন। 

এ সময় প্রতারক চক্র মুক্তিযোদ্ধার পাঞ্জাবির পকেট থেকে কৌশলে চেকের প্রকৃত টোকেনটি বের করে নিয়ে সোনালী ব্যাংকের অন্য একটি চেকের ভ‚য়া টোকেন (নং ৪১৪৮৪৬৩) তাঁর পকেটে ঢুকে দিয়েছে।  তিনি চেক জমা দেওয়ার ১৫ মিনিট পর ব্যাংকের ক্যাসিয়ারের নিকট টাকা চাইতে গিয়ে দেখেন প্রতারক চক্র প্রকৃত টোকেন জমা দিয়ে তাঁর সাড়ে ৩৩ হাজার টাকা তুলে নিয়ে গেছে।  তখন মুক্তিযোদ্ধা তার পকেট থেকে ভ‚য়া টোকেন বের করে বুঝতে পারেন তিনি প্রতারনার শিকার হয়েছেন।  টাকা হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন ওই মুক্তিযোদ্ধা। 

এ বিষয়ে মুক্তিযোদ্ধা আজাহার আলী ভুইয়া বলেন, চেক জমা দিয়ে টোকেন পকেটে রেখে টাকার জন্য ব্যাংকের ভেতরেই অপেক্ষা করছিলাম।  এ সময় প্রতারক চক্র কি ভাবে আমার পকেট থেকে প্রকৃত টোকেন বের করে ভূয়া টোকেন ঢুকিয়ে দিয়েছে তা বলতে পারছিনা।  মাত্র ১৫ মিনিটের ব্যবধানে আমার সাড়ে ৩৩ হাজার টাকা খোয়া গেছে।  তবে এই প্রতারক চক্রের সাথে ব্যাংকের লোকজনের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে।  কারন, অত্র ব্যাংকের এই শাখায় এ ধরনের ঘটনা এর আগেও ঘটেছে। 

সোনালী ব্যাংক ধুনট শাখা ব্যবস্থাপক খন্দকার ফিরোজ আল মুজাহিদ বলেন, মুক্তিযোদ্ধার টাকা খোয়া যাওয়ার বিষয়টি নিয়ে ব্যাংকের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা হয়েছে।  এ ঘটনার সাথে জড়িতদের সনাক্ত করণের প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে।