৬:৪৭ পিএম, ২০ নভেম্বর ২০১৯, বুধবার | | ২২ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




ধুনটে শ্বশুর জামাই সংঘর্ষে আহত ৭

১০ জুলাই ২০১৯, ০৪:৫৬ পিএম | নকিব


রফিকুল আলম, ধুনট (বগুড়া) প্রতিনিধি : বগুড়ার ধুনট উপজেলায় যৌতুকের অতিরিক্ত টাকা নিয়ে বিরোধের জের ধরে শ্বশুর ও জামাইয়ের মধ্যে সংঘর্ষে মহিলাসহ উভয় পক্ষের ৭ জন আহত হয়েছে। 

আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।  উপজেলার নয়াচান্দিয়ার গ্রামে জামাই বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।  

আহতরা হলো, উপজেলার নয়াচান্দিয়ার গ্রামের খোশাল সেখের স্ত্রী ফুলেরা খাতুন (৫০), তার ছেলে গোলাম মোস্তফা (২৫), মধুপুর গ্রামের বাহের আলীর ছেলে সূর্য্যত আলী (৬৫), তার স্ত্রী মর্জিনা খাতুন (৫০), পাঁচথুপী  গ্রামের হবিবর রহমানের ছেলে জাহিদুল ইসলাম (৩৫), হযরত আলীর ছেলে খলিলুর রহমান (৩৪), গোয়ালভাগ গ্রামের আব্দুল মজিদের ছেলে রানা আহম্মেদ (২২)। 

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার নয়াচান্দিয়ার গ্রামের খোশাল সেখের ছেলে গোলাম মোস্তফার সাথে প্রায় এক বছর আগে একই এলাকার মধুপুর গ্রামের সূর্য্যত আলীর মেয়ে রিতা খাতুনের বিয়ে হয়।  বিয়ের সময় মেয়ের বাবা জামাইকে ৩০হাজার টাকা যৌতুক দেয়।  বিয়ের শুরু থেকেই এই যৌতুকের টাকা নিয়ে উভয় পরিবারের মাঝে বিরোধ চলে আসছে।  এ অবস্থায় মেয়ের বাবার নিকট অতিরিক্ত ৮ হাজার টাকা দাবী করে।  কিন্ত মেয়ের বাবা টাকা দিতে টালবাহানা করে।  

এদিকে মঙ্গলবার বিকেলের দিকে সূর্য্যত আলী ও তার স্ত্রী মেয়েকে নাইওরী নেওয়ার জন্য নয়াচান্দিয়ার গ্রামে জামাই বাড়িতে আসেন।  এ সময় জামাইয়ের দাবীকৃত ৮ টাকা নিয়ে শ্বশুর-শাশুড়ির সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। 

এ বিষয়ে গোলাম মোস্তফা বলেন, পাওনা ৮ হাজার টাকা পরিশোধ না করে আমার স্ত্রীকে জোর পূর্বক নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে।  এ সময় বাধা দিলে আমার শ্বশুর, শ্বাশুড়ি ও তাদের লোকজন আমাকে ও আমার মাকে মারপিট করেছে। 

তবে গোলাম মোস্তফার শশুর সূর্য্যত আলী এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, মেয়েকে নাইওরী নেওয়ার জন্য জামাই বাড়ি গেলে জামাই ও তার পরিবারের লোকজন আমাদের মারপিট করেছে।   

ধুনট থানার অফিসার ইনাচার্জ (ওসি) ইসমাইল হোসেন বলেন, এ ঘটনায় অভিযোগ পেলে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।