৯:২৩ এএম, ১৫ নভেম্বর ২০১৯, শুক্রবার | | ১৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪১




ধর্মঘট প্রত্যাহার, ক্রিকেটারদের দাবি মেনে নিয়েছে বিসিবি

২৪ অক্টোবর ২০১৯, ০২:০১ পিএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম:  ক্রিকেট বোর্ডের সঙ্গে বৈঠক শেষে আন্দোলন স্থগিত করেছে ক্রিকেটাররা।  মাঠে ফেরার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ক্রিকেটাররা। 

বুধবার বিসিবি কার্যালয়ে আলোচনা শেষে সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বোর্ড সভাপতি নাজমুল হাসান। 

বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান জানান, আমরা আগের দিনই বলেছিলাম সব দাবিই মেনে নেবো।  আজও আলোচনায় আমরা তাদের ৯টি দাবি মেনে নিয়েছি। 

তবে ক্রিকেটাররা আগের ১১টি দাবির সাথে আরও ২টি যোগ করে ১৩ দফা দাবি পেশ করেছিলেন গুলশানের সংবাদ সম্মেলনে। 

নতুন ২টি নাজমুল হাসান বলেন, নতুন দাবি নিয়ে আমরা আলোচনা করিনি।  এগুলো আইনগত ভাবে দেখা হবে।  এক নম্বর দাবিতে আমাদের কিছু করার নেই। 

এর ফলে ভারত সফরের ক্যাম্প শুরু হচ্ছে শুক্রবার।  আর শনিবার থেকে শুরু হবে জাতীয় ক্রিকেট লিগের তৃতীয় রাউন্ড।  প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটও মাঠে গড়াচ্ছে সূচি অনুযায়ী। 

বিসিবি কার্যালয়ে বোর্ডের সঙ্গে এই আলোচনায় যোগ দিয়েছিলেন সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, ইমরুল কায়েসদের মতো সিনিয়র ক্রিকেটাররা। 

এর আগে বুধবার সন্ধ্যায় গুলশানে সংবাদ সম্মেলনে তাদের মুখপাত্র সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান ১৩ দফা দাবি পেশ করেন।  তিনি জানিয়েছিলেন, বোর্ডের সঙ্গে আলোচনায় বসতে রাজি ক্রিকেটাররা।  আজই (বুধবার) বোর্ডে যাবেন তারা। 

যে ৯টি দাবি মেনে নেয়া হয়েছে-

১. ঢাকা প্রিমিয়ার লিগ আগের মতো আয়োজন করতে হবে।  নিজেদের মতো করে আয়োজন করতে হবে। 

২. এ বছর না হলেও পরের বছর থেকে আগের মতো বিপিএল আয়োজন করতে হবে।  স্থানীয় ক্রিকেটারদের ভিত্তিমূল্য বাড়াতে হবে। 

৩. প্রথম শ্রেণির ম্যাচ ফি ১ লাখ করতে হবে।  গোটা বছর কোচ-ফিজিও দিতে হবে।  জাতীয় ক্রিকেট লিগে প্রতি বিভাগে অনুশীলনের ব্যবস্থা করতে হবে। 

৪. ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো মানের বল দিতে হবে।  ডিএ ১৫০০ টাকায় কিছু হয় না; তাই বাড়াতে হবে।  ট্রাভেলে বিমানের ব্যবস্থা করতে হবে এবং ভালো মানের হোটেল হতে হবে। 

৫. চুক্তিভুক্ত ক্রিকেটারের সংখ্যা ও বেতন বাড়াতে হবে। 

৬. দেশি সব স্টাফের বেতন বাড়াতে হবে।  কোচ থেকে গ্রাউন্ডস ও আম্পায়ার, সবার বেতন বাড়াতে হবে। 

৭. ঘরোয়া ওয়ানডে বাড়াতে হবে।  বিপিএলের আগে আরেকটি টি-টোয়েন্টির টুর্নামেন্টের আয়োজন করতে হবে। 

৮. ঘরোয়া ক্যালেন্ডার নির্দিষ্ট করতে হবে। 

৯. বিপিএলের পাওনা টাকা সময়ের মধ্যে দিতে হবে।