১২:৩৬ এএম, ২৫ আগস্ট ২০১৯, রোববার | | ২৩ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




নেত্রকোণায় শিশুর মস্তক ছিন্ন করে নিয়ে যাওয়ার সময় যুবক গণপিটুনিতে নিহত

১৮ জুলাই ২০১৯, ০৫:৪৭ পিএম | নকিব


জাহাঙ্গীর আলম,নেত্রকোণা প্রতিনিধি : নেত্রকোণায় গলা কেটে এক  শিশুর মস্তক ছিন্ন করে নিয়ে যাচ্ছিল এক যুবক।  পরে স্থানীয়দের গণপিটুনিতে ওই যুবকও নিহত হন। 

বৃহস্পতিবার বেলা পৌনে ১টার দিকে শহরের নিউটাউন এলাকার অনন্তপুকুর পাড়ে এই ঘটনা হয়। 

সারাদেশের ন্যায় নেত্রকোণাতেও পদ্মাসেতুতে  মানুষের মাথার প্রয়োজন এমন গুজবের মধ্যেই শিশুর  মস্তক ছিন্ন করে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটল। 

নেত্রকোণা মডেল থানার ওসি তাজুল ইসলাম জানান, শিশুটির পরিচয় নিশ্চিত করেছেন।  শিশুটি হচ্ছে- নেত্রকোণা সদর উপজেলার আমতলা গ্রামের রিক্সাচালক রইছ উদ্দিনের ছেলে সজীব (৮)।  রইছ উদ্দিন বর্তমানে শহরের কাটলি এলাকায় হিরণ মিয়ার বাসায় ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করে আসছেন।  তবে তিনি যুবকের পরিচয় তোৎক্ষণিকভাবে নিশ্চিত করতে পারেনি।  

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, বেলা ১টার দিকে  শহরের কাটলি এলাকা থেকে ওই যুবক শিশুর ছিন্ন মস্তক নিয়ে দৌড়ে পালাচ্ছিলেন।  স্থানীয়রা বিষয়টি বুঝতে পেরে  যুবকের পিছু  ধাওয়া  করে ।  এক পর্যায়ে শহরের নিউটাউন এলঅকার অনন্ত পুকুর পাড়ে  যুবককে ধরে গণপিটুনি দেয়।  এতে ঘটনাস্থলেই যুবক নিহত হন।  পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে শিশুর ছিন্ন মস্তক ও যুবকের লাশ উদ্ধার করে নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতালে  পাঠায়। 

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আশরাফুল আলম জানান, নিহত যুবকের পরিচয় উদ্ধারসহ কেন এই হত্যাকান্ড তা বের করতে পুলিশ তদন্তে নেমেছে।  এখনও শিশুটির দেহ উদ্ধার করা যায়নি।  এই হত্যাকান্ডের সাথে পদ্মাসেত তে মাথার প্রয়োজন এমন গুজবের কোন সম্পর্ক নেই বলে দাবি করেছেন পুলিশের এই কর্মকর্তা। 


keya