১২:৫৫ এএম, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, রোববার | | ১২ মুহররম ১৪৪০


নান্দাইলে ভূট্টার বাম্পার ফলনে কৃষকের মুখে রঙ্গিন হাঁসি

১৬ এপ্রিল ২০১৮, ১১:৫৭ এএম | জাহিদ


মো.শাহজাহান ফকির, নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি : ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার চরাঞ্চল সহ বিস্তীর্ণ এলাকায় এবার ভূট্টা চাষের বাম্পার ফলনের সম্ভবনা রয়েছে। 

বৈরী আবহাওয়া না থাকায় সারি সারি আবাদকৃত ভূট্টা ক্ষেত সবুজ বর্ণ থেকে সোনালী বর্ণে রূপান্তরিত হচ্ছে।  ভূট্টার প্রতি গাছে গাছে ১ থেকে ২টি করে মুকুল (কলা) দেখা যাচ্ছে।  এতে করে ভূট্টা চাষিদের মুখে ফুটছে রঙ্গিন হাসি।  গত কয়েক বছরে ভুট্টা চাষ করে লাভবান হওয়ায় এর আবাদ বেড়েছে।  ৪৪০ হেক্টর জমিতে এর আবাদ হয়েছে।  তবে অন্য বছরের তুলনায় এবার বেশী লাভবান হওয়ার আশাবাদী কৃষকরা। 

বৃহস্পতিবার সরেজমিনে দেখা গেছে, উপজেলার মুশুলী ইউনিয়নে রফিক মিয়ার ক্ষেতে ভূট্টা গাছে গাছে মুকুল এসেছে।  কৃষকরা যে সমস্ত জমিতে বোরো আবাদ করতে পারেনি সেমস্ত জমিতে ভূট্টা আবাদ করেছে। 

রফিকুল ইসলাম রফিক জানান, প্রতি বিঘা জমিতে ভূট্টা আবাদে খরচ পড়ে গড়ে ২ হাজার টাকা।  উৎপাদন হয় প্রায় ২৫-৩০ মণ ভূট্টা।  খরচ বাদে লাভ থাকে ৫ থেকে ৭ হাজার টাকা। 

চন্ডীপাশা ইউনিয়নের কৃষক আলআমিন জানান, ভূট্টা বীজ সংগ্রহ করতে অনেক সময় চাষিদের বেগ পেতে হয়।  তবে বীজ সংগ্রহের ব্যাপারে কৃষি অফিসারেরা আমাদের সহযোগীতা করেন।  উনাদের সহযোগীতায় ভাল বীজ ও ভূট্টা ক্ষেতে কীটনাশক সরবরাহ করেছি।  আশা করি ভাল ফলন পাব। 

কৃষক আসাদুল ইসলাম আসাদ জানান, ধান বা অন্য ফসল চাষাবাদ করলে যে খরচ হয় তার চেয়ে ভূট্টা চাষে খরচ কম হওয়ায় আমরা এই সিজনে বেশী ভূট্টা চাষ করেছি। 

উপজেলা কৃষি অফিসার নাছির উদ্দিন জানান, কৃষকরা আগ্রহ ও উৎসাহী হওয়ায় চলতি মৌসুমে ৪৪০ হেক্টর জমিতে এবার ভূট্টা চাষ হয়েছে।  আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় ভূট্টার বাম্পার ফলনের সম্ভাবনা রয়েছে।  আমরা চাষিদের বিভিন্ন প্রশিক্ষন দিয়ে বীজ সরবরাহ করে থাকি।  উপজেলার ৬০ জন কৃষককে কোহিনূর জাতের ভূট্টার বীজ দেওয়া হয়েছে।  বর্তমানে মাঠ পর্যায়ে অন্যান্য বীজের চেয়ে কোহিনূরের ভাল ফলন দেখা যাচ্ছে। 


keya