৫:২২ এএম, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার | | ১৪ মুহররম ১৪৪০


নারিকেল তেল নাকি মারাত্মক বিষ, দাবি হাভার্ড'র গবেষকের!

২৫ আগস্ট ২০১৮, ১০:০৩ এএম | নকিব


এসএনএন২৪.কম : ঘি, সরিষার তেলে ভেজালের খবর তো অনেক শুনেছেন।  এবার চমকে দেওয়ার মত খবর দিলেন হাভার্ডের এক গবেষক।  তার দাবি , নারিকেল তেল নাকি মারাত্মক বিষ। 

ইউটিউবে ভাইরাল হয়েছে হাভার্ডের সেই গবেষকের সতর্কবার্তা। 

নারিকেল তেলে যে বিষ রয়েছে একথা আগে কখনও কেউ ভাবতেই পারেননি।  এতদিন সকলেই বিশ্বাস করতেন নারিকেল তেলে বিপদ কম।  কিন্তু হাভার্ডের গবেষকের শেই ভিডিও বার্তা চমকে দিয়েছে সকলকে।  সোশ্যাল মিডিয়ায় এখন ভাইরাল হয়ে গেছে এই খবর। 

হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক কেরিন মিশেল তার ভিডিও বার্তায় বলেছেন, যারা নারিকেল তেলকে নিরাপদ বলে মনে করছেন তারা জীবনে সবথেকে বড় বিপদ ডেকে আনছেন।  কারণ তারা জানেনই না প্রতিদিন কী মারাত্মক বিষ তাদের শরীরে ঢুকছে। 

অবিলম্বে নারিকেল তেলে রান্না করা বন্ধ করুন।  জার্মান ভাষায় ভিডিও বার্তাটিতে তিনি জনসাধারণকে সতর্ক করে বলেছেন, মারাত্মক বিষ রয়েছে নারিকেল তেলে।  যাকে একেবারে বিশুদ্ধ বিষ।  একাবার নয় পর পর তিনবার বিষ শব্দটি উচ্চারণ করেছেন তিনি।   মিশেল বলেছেন, নারিকেল তেলে প্রচুর পরিমাণে স্যাচুরেটেড ফ্যাট খারে যা মানুষের শরীরে অতিমাত্রায় কোলেস্টেরল বাড়ায় এবং হৃদরোগের প্রবণতা বাড়িয়ে তোলে। 

এক মার্কিন হার্ট অ্যাসোসিয়েশনের তথ্য দিয়ে তিনি বলেছেন, নারিকেল তেলে নাকি ৮০ শতাংশ ফ্যাট স্যাচুরেটেড যা মাখন(‌ ৬৩ শতাংশ)‌, গো মাংস(‌ ৫০ শতাংশ)‌,শুয়োরের মাংসের(‌৩৯ শতাংশ) থেকেও অনেক বেশি। 

হাভার্ডের আরও এক অধ্যাপক বলেছেন, অতিমাত্রায় স্যাচুরেটেড ফ্যাট শরীরে ঢুকলে কোলেস্টেরলের পরিমাণ মারাত্মক ভাবে বাড়িয়ে দেয়।  যার জেরে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার প্রবণতা বাড়ে।  শুধু মিশেল নয় হাভার্ডের একাধিক অধ্যাপক নারিকেল তেল ব্যবহার নিয়ে এমনই বিরূপ প্রতিক্রিয়া দিয়েছেন। 


keya