১:৩৫ এএম, ১৯ আগস্ট ২০১৯, সোমবার | | ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০




চবি কেন্দ্রীয় মসজিদে পবিত্র মি‘রাজুন্নবী (স:) উপলক্ষে মাহফিলে চবি উপাচার্য

পবিত্র কুরআন সুন্নাহর আলোকে বিশ্ব মানবকূলকে আলোকিত জীবন গড়ার আহ্বান

০৪ এপ্রিল ২০১৯, ১১:৩১ এএম | জাহিদ


এসএনএন২৪.কম : পবিত্র মিরাজুন্নবী (সঃ) উদযাপন উপলক্ষে ৩ এপ্রিল চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয়  মসজিদের উদ্যোগে মসজিদ প্রাঙ্গনে মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।  এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে ভাষণ দেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. ইফতেখার উদ্দিন চৌধুরী। 

উপাচার্য তাঁর ভাষণে উপস্থিত মুসল্লিদের স্বাগত ও আন্তরিক শুভেচ্ছা জানান।  তিনি বলেন, পবিত্র মিরাজুন্নবী (সঃ) মুসলিম উম্মাহর জন্য একটি অত্যন্ত পবিত্র রজনী।  উপাচার্য বলেন, এ রাতে আমাদের প্রিয় নবী হযরত মুহাম্মদ (সঃ) জিব্রাইল আলাইহে ওয়াসাল্লামের সাথে পবিত্র কাবা হতে ভূ-মধ্যসাগরের পূর্বতীর ফিলিস্তিনে অবস্থিত পবিত্র বায়তুল মোকাদ্দেস হয়ে সপ্তাকাশের উপর সিদরাতুল মুনতাহা হয়ে সত্তর হাজার নুরের পর্দা ফেরিয়ে আরশে আজিমে মহান আল্লাহতায়ালার দিদার লাভ করেন এবং পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের হুকুম নিয়ে দুনিয়াতে প্রত্যাবর্তন করেন। 

তিনি আরও বলেন, মহানবী (সঃ) অবলোকন করেন সৃষ্টিজগতের সমস্ত কিছুর অপার রহস্য।  সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট মহামানব ও রাসুল হযরত মুহাম্মদ (সঃ) ছাড়া অন্য কোন নবী এ পরম সৌভাগ্য লাভ করতে পারেননি।  এ কারণেই তিনি সর্বশ্রেষ্ট নবী ও রাসুল।  উপাচার্য মহানবী (সঃ)-এর জীবন-আদর্শ ধারণ, লালন ও চর্চার মাধ্যমে মানবিক এবং অসাম্প্রদায়িক সমাজ প্রতিষ্ঠায় পবিত্র কুরআন সুন্নাহর আলোকে জ্ঞান-বিজ্ঞান চর্চায় ব্রতী হয়ে বিশ্ব মানবকূলকে আলোকিত জীবন গড়ার আহবান জানান। 

চবি কেন্দ্রীয় মসজিদের সভাপতি প্রফেসর ড. মোহাম্মদ আবুল মনছুর-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন চবি আরবী বিভাগের প্রফেসর ড. মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন তালুকদার।  এতে আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন চবি কেন্দ্রীয় মসজিদের খতিব হাফেজ আবু দাউদ মুহাম্মদ মামুন এবং শাহজালাল হল মসজিদের ইমাম-খতিব মাওলানা মুহাম্মদ নুরুল আজম।  অনুষ্ঠানে চবি রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) জনাব কে এম নুর আহমদ, প্রধান প্রকৌশলী জনাব মো. আবু সাঈদ হোসেনসহ বিশ^বিদ্যালয়ের সম্মানিত শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং বিপুল সংখ্যক মুসল্লী উপস্থিত ছিলেন।