১২:৫৭ পিএম, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৮, শনিবার | | ৬ রবিউস সানি ১৪৪০




প্রকৌশলী হাফিজের অশোভন আচরণ , জাককানইবিসাসের নিন্দা

০১ আগস্ট ২০১৮, ০৬:৪৩ পিএম | জাহিদ


এস.এম.মহিউদ্দিন সিদ্দিকী, জাককানইবি প্রতিনিধি : জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিকল্পনা দপ্তরের পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ হাফিজুর রহমান বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মরত সাংবাদিকদের সাথে অশোভন আচরণের জন্য নিন্দা প্রকাশ করেছে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতি ( জাককানইবিসাস)। 

সরেজমিনে জানা যায়,  বুধবার প্রশাসনিক ভবনের নিচে ৪টি ভবনের (বর্ধিত করণ) নির্মান কাজ শুরুর উদ্বোধন ও ২টি স্থাপনার ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করা হয়। 

ভবন গুলোর মধ্যে শিক্ষক ও কর্মকর্তাদের ভবন ৩য় থেকে ৫ম তলা সম্প্রসারণ, লাইব্রেরি ভবন সম্প্রসারণ, ছাত্রী হল এর উর্ধ্বমূখী সম্প্রসারণ, সীমানা প্রাচীর নির্মান কাজ ও ভাস্কর্য নির্মান কাজ এর উদ্ভোধন করা হয়।  অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে হট্টগোল পরিবেশের সৃষ্টি হয় পরিকল্পনা দপ্তরের পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ হাফিজুর রহমান এর সাথে অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকা একাধিক সিনিয়র শিক্ষকের।  ভিত্তি প্রস্তরগুলোর মধ্যে  বঙ্গবন্ধু ও কবি নজরুল এর ভাস্কর্য নির্মান ও শিক্ষকদের ভবন নির্মানের এর ভিত্তি প্রস্তর নিচে রাখা হলো কেন এই বিষয় নিয়ে তর্কাতর্কি শুরু হয় ।  একপর্যায় উপাচার্যের চেষ্টায় পরিবেশ শান্ত হয়। 

ঘটনার প্রতিবাদ জানান সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মোঃ নজরুল ইসলাম, ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. সুব্রত কুমার দে , পরিক্ষা নিয়ন্ত্রক ড. নির্মল চন্দ্র সাহা, শিক্ষক সমিতির সভাপতি তপন কুমার সরকার সহ উপস্থিত অনেকেই। 

উপস্থিত ব্যক্তিরা প্রতিবাদ জানালে বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে তারা ভুল তা উত্তেজিত হয়ে প্রমান করার চেষ্টা করতে দেখা গেছে পরিকল্পনা দপ্তরের পরিচালক হাফিজুর রহমানকে।   কেবল তাদের সাথেই নয় সংবাদ সংগ্রহের কাজে নিয়োজিত গণমাধ্যম কর্মীদের প্রশ্নের প্রেক্ষিত ক্ষিপ্ত হতে দেখা গেছে তাকে(হাফিজুর) ।  এর আগেও একাধিকবার গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে অশোভন ব্যবহার করার অভিযোগ রয়েছে। 

গণমাধ্যম কর্মীদের সাথে অশোভন আচরনের জন্য পরিকল্পনা দপ্তরের পরিচালক প্রকৌশলী মোঃ হাফিজুর রহমান এর প্রতি তীব্র নিন্দা জানিয়েছে কবি নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় সাংবাদিক সমিতির  সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। 

সংগঠনটির সভাপতি মেহেদী জামান লিজন ও সাধারণ সম্পাদক ওয়্যাহিদুল ইসলাম জানান, আমরা প্রকৌশলী মোঃ হাফিজুর রহমানের অশোভন আচরণের নিন্দা জ্ঞাপন করছি এবং এই বিষয়ে লিখিত ভাবে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনকে অবহিত করব। 

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক শিক্ষক বলেন এই ব্যক্তি বিশ্ববিদ্যালয় এর পরিবেশকে নষ্ট করে ফেলছে।  আজ  সে একটি দুঃসাহস দেখালো বঙ্গবন্ধু ও কবি নজরুল এর ভাস্কর্য নির্মানের ভিত্তি প্রস্তর নিচে লাগিয়ে ।  বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ নষ্ট করতে এই এক হাফিজুর সাহেবই যথেষ্ট । 

উল্লেখ্য, পরিকল্পনা দপ্তরের পরিচালক হাফিজুর রহমান এর আগেও অনেক বিতর্কিত কাজের মধ্য দিয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে আলোচনার কেন্দ্রে এসেছিলেন ।  তার নামে বিশ্ববিদ্যালয়ে নির্মানাধীন ভবন নির্মানে অনেক অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে । 



keya