১১:৪২ এএম, ১৯ আগস্ট ২০১৮, রোববার | | ৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৩৯


পিরোজপুরে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

০৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০৯:০০ পিএম | সাদি


পিরোজপুর সংবাদদাতা : পিরোজপুরের নেছারাবাদে (স্বরুপকাঠী) পূর্ব শত্রুতার জেড়ে মোস্তফা চৌধুরী নামের এক যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।  শুক্রবার সকালে পুলিশ লাশ উদ্ধার করেছে।  জেলার নেছারাবদের( স্বরূপকাঠীর )জলাবাড়ি ইউনিয়নের আরামকাঠী গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।  নিহত মোস্তফা চৌধুরী (৩৫) স্বরুপকাঠীর জলাবাড়ি ইউনিয়নের আরামকাঠী গ্রামের সোহরাফ চৌধুরীর ছেলে। 

নিহতের পিতা সোহরাফ চৌধুরী অভিযোগ করে জানান, পূর্ব শত্রুতার জেড়ধরেই গত বৃহস্পতিবার রাতে কাজ শেষে বাড়ি ফেরার পথে মোস্তফাকে ধরে নিয়ে গিয়ে স্থানীয় ইউপি সদস্য মো. নকিতুল্লাহ এবং স্থানীয় শাহজাহান মোল্লা, আখতার, ইব্রাহীম চৌকিদারসহ পিটিয়ে আহত করে।  তিনি এই খবর পেয়ে স্থানীয় আরামকাঠী হাজী মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে গিয়ে মোস্তফাকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসে। 

সোহরাফ চৌধুরী আরো জানান, রাতে প্রতিপক্ষের ভয়ে বাড়ি থেকে হাসপাতালে নিতে পারেনি মোস্তফাকে।  সকালে মোস্তফাকে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষনা করে।  

নিহতের বোন মুক্তা আক্তার জানান, ইউপি নির্বাচনে তার ভাই মেম্বার নুকিতুল্লাহর প্রতিপক্ষের নির্বাচন করে তার ভাই মোস্তফা।  তাই এরপর থেকে মোস্তফাকে তারা বিভিন্ন সময় ভয়ভীতি দেখিয়ে এবং কয়েকবার মারধর করেছে।  এই কারণে দীর্ঘদিন মোস্তফা বাড়ি থেকে ঢাকায় গিয়ে ছিল।  বৃহস্পতিবার পূর্ব পরিকল্পিত ভাবেই মোস্তফাকে তারা পিটিয়ে হত্যা করেছে। 

অভিযুক্ত ইউপি সদস্য নুকিতুল্লাহ জানান, তিনি মারধরের বিষয়ে কিছুই জানেন না।  তবে স্থানীয়রা চোর পাহাড়া দিতে গিয়ে চোর সন্দেহে তাকে ধরে মারপিট করতে পারে।  পরে আরামকাঠী হাজী মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে মোস্তফাকে নিয়ে গেলে তিনি মোস্তফাকে পুলিশে দিতে চাইলেও পরিবারের অনুরোধে এবং স্থানীয়দের কথায় তাকে তার বাবার কাছে দিয়ে দেওয়া হয়।  এরপর তিনি কিছুই জানেন না। 

এ ব্যাপারে স্বরূপকাঠি থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে এবং এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রী রাশিদা বেগম ৮ জনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেছেন।